নয়াদিল্লি: কতকটা চাঞ্চল্যকরভাবে ইস্তফা দিলেন ভারতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত ন্যান্সি পাওয়েল৷ সোমবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার কাছে নিজের ইস্তফাপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন তিনি৷ ষাটোর্ধ্ব পাওয়েলের ইস্তফার কথা সরকারি ভাবে স্বীকার করে নিয়েছে আমেরিকা৷ মার্কিন দূতাবাসের ওয়েবসাইটে প্রেস বিবৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, ৩১ মার্চ আমেরিকার মিশন টাউন হলের বৈঠকে প্রেসিডেন্ট ওবামার কাছে ইস্তফাপত্র তুলে দেন ন্যান্সি পাওয়েল৷ মে মাসে তিনি অবসর নিচ্ছেন৷ ভারতে সাধারণ নির্বাচন দোড়গোরায়৷ আমেরিকাও তাকিয়ে রয়েছে ভারতের এই লোকসভা ভোটের দিকে৷ ফলে হঠাৎ রাষ্ট্রদূতের ইস্তফা ঘিরে জল্পনা শুরু হয়েছে৷ গত সপ্তাহেই মার্কিন সংবাদ মাধ্যমে পাওয়েলকে তাঁর দায়িত্ব থেকে সরানো হতে পারে খবর প্রকাশিত হয়েছিল৷ গত মাসেই গুজরাতের গান্ধীনগরে গিয়ে বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন ন্যান্সি৷ আমেরিকা পরিস্থিতি বুঝে মোদী প্রশ্নে নরম হচ্ছে, তা বোঝা গিয়েছিল তখন থেকেই৷ যদিও আমেরিকার বিদেশ দফতর পরে জানায়, গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রীর বিষয়ে তাদের অবস্থান বদলায়নি৷ মার্কিন সংবাদ মাধ্যম দাবি করেছে, ইউপিএ সরকারের কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে ন্যান্সি পাওয়েলের সম্পর্ক ভাল৷ ফলে ভারতে যখন গেরুয়া ঝড়ের পূর্বাভাষ মিলছে, তখন ইউপিএ ঘনিষ্ঠ ন্যান্সিকে রাষ্ট্রদূত হিসেবে রেখে বিজেপিকে রুষ্ট করতে চাইছে না আমেরিকা৷ তাই তড়িঘড়ি তাঁকে পদত্যাগ করতে বাধ্য করা হয়েছে৷

----
--