গসিপ আর সম্পর্কের রসায়নে উত্তাল বলিউড

বক্সঅফিস জমজমাট ৷৷

২০১৩-এর বলিউড বক্স অফিস একেবারে হ্যাপিনিং৷ তা একশো কোটি, দু’শো কোটির ক্লাব গঠন হোক কিম্বা রিমেক, সিকোয়েলের মহা এপিসোড৷ নতুন হিরো-হিরোইনের উত্থান থেকে পুরনো নায়ক-নায়িকাদের নতুন সমীকরণ৷ সর্ম্পকের জটিলতা থেকে গসিপ সব মিলিয়ে এ বছরের বলিউডের খবর নিয়ে উত্তাল খবরের দুনিয়া৷ তাই বছর শেষের মুহূর্তে নজর দেওয়া বলিউডের বক্স অফিসে৷

সিকোয়েলে শিকি ছেঁড়া

নয় নয়, করে প্রায় এগারোটি ছবির সিকোয়েল নিয়ে বলিউড বক্স অফিস ছিল এবার উত্তাল৷ বছরের শুরুতেই আসে ‘রেস টু’৷ আব্বাস-মস্তানের পরিচালনায় এই ছবির পার্ট টু দর্শকদের যতটা আনন্দ দিতে পেরছিল, সেই আন্দাজে সিকোয়েল বেশ প্রত্যাশা নিয়ে বক্স অফিসে এলেও শেষমেশ মুখ থুবড়ে পড়ে এই ছবি৷ বেশি টুইস্টের গেড়োতে পড়ে ‘রেস টু’ জিতে নিতে পারল না দর্শকদের মন৷ ঠিক তাঁর পরের মাসে অর্থাৎ ফেব্রুয়ারিতে বক্স অফিসে আসে ‘মার্ডার থ্রি’৷ বিশেষ ভাট পরিচালিত এই থ্রিলার নিয়ে কৌতুহল ছিল সিনেমা প্রেমীদের মধ্যে৷ তবে রণদীপ হুডা, অদিতি রাও হায়দেরি, মোনা লিজা-র অভিনয় জিতে নিতে পারল না দর্শকের মন৷ মাঝখানে একটা মাস৷ এপ্রিলে মাসে মুক্তি বহু প্রতিক্ষীত ‘আশিকি টু’৷ আদিত্য রয় কাপুর ও শ্রদ্ধা কাপুর অভিনিত এই ছবি শুধু বক্স অফিস নয় জিতে নিল ভারতীয় দর্শকদের মন৷ ছবির গান গোটা বছর ধরেই ছিল সুপারহিট লিস্টে৷ এর মধ্যেই টুক করে মুক্তি পায় ‘ইয়ামলা পাগলা দিওয়ানা টু’৷ তবে বক্স অফিস একেবারেই নিতে পারে না ইয়ামলার পাগলামি৷ ফলাফল ছবি ডাহা ফ্লপ৷ নভেম্বরের শুরুর দিকে ‘কৃশ থ্রি’ মুক্তি পেলেও বছরের শুরু থেকেই এই ছবি নিয়ে ছিল উত্তেজনা তুঙ্গে৷ রাকেশ রোশন পরিচালিত এই ছবির স্পেশাল এফেক্টস-ই ছিল ছবির ইউএসপি৷ তার ওপর কৃশ বেশে হৃতিক রোশন৷ ভিলেন চরিত্রে বিবেক ওবেরয় এবং একেবারে নতুন অবতারে কঙ্গনা রানাওয়াত৷ ছবিটি ব্যবসা করে প্রায় দুশো কোটি টাকা৷ ‘কৃশ থ্রি’- এর সঙ্গে সঙ্গেই মুক্তি পায় রামগোপাল ভর্মার ‘সত্যা টু’৷ প্রত্যাশা নিয়ে ছবিটি মুক্তি পেলেও মুখ থুবড়ে পড়ে বক্স অফিসে৷ তবে চমকটা আসে বছরের শেষমাসে৷ মুক্তি পায় বহু প্রতীক্ষিত, বহু আলোচিত ছবি ‘ধূম থ্রি’৷ আমির খান, ক্যাটরিনা কইফ, অভিষেক বচ্চন, উদয় চোপড়া অভিনিত ধূম সিরিজের তৃতীয় ছবিটি বক্স অফিসে তোলে ঝড়৷ ক্রিসমাস ফেস্টিভমুডে ধূমগিরি কাঁপিয়ে দেয় ভারতীয় বক্স অফিস থেকে পাকিস্তানও৷ এতদিন বলিউড মজে ছিল একশো কোটির ক্লাবে৷ ‘ধূম থ্রি’ একশো কোটিকে টেক্কা দিয়ে দুশে নয় একেবারে তিনশো কোটির ক্লাবে প্রথম এন্ট্রি মারল  ‘ধূম থ্রি’৷

বাণিজ্যে বসতে লক্ষ্মী

 জ্ঞান নয়, বিজ্ঞান নয় শুধুই খাঁটি বিনোদন৷ ঠিক এই ফিলোজফিকেই সঙ্গী করেই বক্স অফিস এবছর হাজির হয়েছিল বেশ কিছু ছবি৷ হালকা-ফুলকা গল্পে, জমজমাট সঙ্গীতে দর্শকের মন ভরিয়ে বক্স অফিসে সফল ব্যবসা৷ আর এই তালিকায় প্রথমেই আসে শাহরুখ-দীপিকা অভিনিত পরিচালক রোহিত শেঠির ছবি ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’৷ ভারি ভারি কথা নয়, টোটাল এন্টারটেনমেন্টই ছিল এই ছবির মূল উপপাদ্য বিষয়৷ আর এই ছবিই ছিল ২০১৩-এর প্রথম একশো কোটির ক্লাবের ছবি৷ তার পরেই আসে রণবীর-দীপিকা অভিনিত ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’-র নাম৷ আদ্যপান্ত প্রেমের এই ছবি মুগ্ধ করে ইয়ংজেনকে৷ রণবীর এবং দীপিকার কেমেস্ট্রি, জমজামট গান নিয়ে এই ছবি এন্ট্রি নিয়েছিল একশো কোটির ক্লাবে৷ শেক্সপিয়রের ‘রোমিও-জুলিয়েট’কে নিজের মতো করে পর্দায় নিয়ে আসেন সঞ্জয়লীলা বনশালি৷ ছবির নাম ‘রামলীলা’ দীপিক-রণবীর সিংহের কেমেস্ট্রি আর রঙিন উপস্থাপনা দেখে দর্শকরা প্রশংসায় পঞ্চমুখ৷ ফুলটুস এন্ট্রারটেনমেন্ট নিয়ে বক্স অফিসে হাজির আরও বেশ কিছু ছবি৷ যেমন, স্পেশাল ছাব্বিশ, চশমে বদ্দুর, জলি এলএলবি, রাঞ্ঝনা, ফুকরে, শুদ্ধ দেশি রোম্যান্স, এবিসিডি ও আর রাজকুমার, কাই পো চে ৷

আহ্লাদে আটখানা

বক্স অফিসে তুমুল সাফল্য৷,একশো কোটি, দুশো কোটি, তিনশো কোটির ক্লাবে না জায়গা পেলেও দর্শকদের মন জয়ে কিন্তু এরা একশো শতাংশ সফল৷ ২০১৩ তে এরকমই কিছু ছবি নিয়ে সিনেমা মহল ছিল প্রশংসায় পঞ্চমুখ৷ যার প্রথমেই আসে পরিচালক বিক্রমাদিত্য মোতওয়ানির ‘লুটেরা’৷ রণবীর সিং, সোনাক্ষি সিনহা অভিনিত এই ছবি বক্স অফিসে তেমন কিছু না করতে পারলেও বিক্রমাদিত্য-র এই লাভ স্টোরির প্রশংসায় সবাই ছিল পঞ্চমুখ৷ জন আব্রাহম অভিনিত পরিচালক সুজিত সরকারের ‘মাদ্রাজ ক্যাফে’ ছবি ঘিরেই ছিল উত্তেজনা তুঙ্গে৷ অন্যদিকে একেবাের অন্যরকম ছবি নিয়ে দর্শকের সামনে আসেন পরিচালক রীতেশ বাত্রা৷ ছবির নাম ‘শিপ অফ থিয়েসিস’৷ ভারতীয় প্রেক্ষাপটে তৈরি এই ইংরেজি এই ছবি বক্স অফিসে সফল না হলেও প্রশংসা কুড়িয়ে নেন সব মহল থেকেই৷ এই ছবি দেখে ভূয়সী প্রশংসা করেন আমির খান ও তাঁর স্ত্রী পরিচালক কিরণ রাও৷ ঠিক একরমই ছাপ ফেলে যায় পরিচালক অর্জুন বহেলের ছবি ‘বি এ পাস’, পরিচালক হনসল মেহেতা-র ছবি ‘শাহিদ’ ও বলিউডে চার নামজাদা  পরিচালক করণ জোহর, জোয়া আখতার, অনুরাগ কাশ্যপ, দিবাকর বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ‘বম্বে টকিজ’৷ অনায়েসে এই তালিকায় আনা যায় পরিচালক রাকেশ ওমপ্রকাশ মহেরা ছবি ‘ভাগ মিলখা ভাগ’৷ মিলখা সিংয়ের জীবনি নিয়ে তৈরি এই ছবিতে অভিনেতা ফরহান আখতারের অভিনয় তাক লাগিয়ে দেয় সব্বাইকে৷

ফস্কা গেরো

ঢাক, ঢোল পিটিয়ে তুমুল প্রোমোশনের ঝড় বইয়ে বক্স অফিসে এলেও, লক্ষ্মী লাভ তো দূরের কথা, দর্শকদের অপছন্দের লিস্টে স্থান পেয়েই শান্তি পেয়েছে বেশ কিছু ছবি৷ যার মধ্যে ‘জঞ্জির’, ‘সত্যাগ্রহ’, ‘ওয়ান্স আপঅন আ টাইম ইন মুম্বই দোবারা’, ‘ঘনচক্কর’, ‘বুলেট রাজা’, ‘হিম্মতওয়ালা’৷

 একাই একশো

২০১৩-এর বলিউডের বক্স অফিসে একাই কামাল দেখিয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন৷ এ বছরের সবচেয়ে সাকসেসফুল নায়িকা তিনিই৷ যে ছবিতে অভিনয় করেছেন সেই ছবি-ই কামাল করেছে বক্স অফিসে৷ তা ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’ হোক বা ‘রামলীলা’ কিম্বা ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’৷ ছবির সাকসেস থেকে নানা কারণে বার বারই দীপিকা ছিলেন শিরোনামে৷

সেরা জুটি

বলা যেতে পারে এ বছরে তিনটি সেরা জুটি৷ পুরনো প্রেমকে সিনেপর্দায় ক্যাস করে দীপিকা-রণবীর এলেন ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’তে৷ অয়ন মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় ও রণবীর-দীপিকা কেমেস্ট্রিতে ছবি বক্স অফিসে জমিয়ে হিট৷

ফের আসেন দীপিকা তবে এবার অন্য কাপুর রণবীর নয়, বরং বক্স অফিস জমিয়ে দেন রণবীর সিংয়ের সঙ্গে৷ সঞ্জয়লীলা বনশালির পরিচালনায় ‘রামলীলা’ ছবির রোমিও-জুলিয়েটে সেজে দর্শক টু সমালোচক সবার কাছ থেকে প্রশংসা কুড়িয়ে নেন দীপিকা-রণবীর৷

images (3)ranveerdeepika

ফুলটুস প্রেমের গল্প৷ ছবির নাম ‘আশিকি টু’৷ আর সেই আশিকিকে সঙ্গী করেই জুটি হিসেবে বক্স অফিস কাঁপিয়েছেন আদিত্য রয় কাপুর ও শ্রদ্ধা কাপুর৷ মিষ্টি এই জুটির অভিনয় দেখেই বহু মানুষই পছন্দ করেছেন বলিউডের এই নতুন প্রেমিকজুটিকে৷

খবরে বলিউড

শাহরুখ পুত্র কাব্য- সারোগেসির সাহায্য নিয়ে জন্ম নিল শাহরুখের তৃতীয় সন্তান আব্রাম৷ আর তা নিয়েই উত্তাল মুম্বই কর্পোরেশন৷ সন্তানের সঠিক পরিচয় নিয়ে দ্বন্দ্ধ, ঝামেলা, বির্তক৷ তার ওপর খবর ছিল জন্মের পূর্বে শাহরুখ নাকি বেআইনিভাবে জেনেছিলেন সন্তানের লিঙ্গ৷ এই নিয়ে আদালতের সম্মুক্ষিনও হতে হয় শাহরুখ-গৌরি খানকে৷

হৃতিক-সুজানের বিবাহ বিচ্ছেদ- বলিউডের হাওয়ায় উড়ছিল অশান্তির খবর বহুদিন ধরেই ৷ শেষমেশ ডিসেম্বর মাসের তেরো তারিখ অফিসিয়ালি হৃতিক জানিয়েদেন স্ত্রী সুজানের সঙ্গে বিচ্ছেদের কথা৷ এই কথা জানতেই ঝড় বয়ে যায় গোটা বলিউডে৷ বছরেরে শেষে বলিউডের এই ঘটনা সত্যিই চমকে দেয় সব্বাইকে৷

 মন মাতানো গান

১) শুন রাহা হ্যায় না তু- আশিকি টু

২) চাহু ইয়া ম্যায় না- আশিকি টু

২) মাঞ্জা – কাই পো চে

৩) সওয়ার লু – লুটেরা

৪) তুম তক- রাঞ্ঝনা

৫) লাল ইশক- রামলীলা

৬) অঙ্গ লাগা দে- রামলীলা

৭) তিতলি – চেন্নাই এক্সপ্রেস

৮) গুলাবি- শুদ্ধ দেশি রোম্যান্স

৯) দিল তু ইয়ে বাতা- কৃশ থ্রি

১০) তেরি ঝুঁকি নজর- মার্ডার থ্রি

 

ডিস্ক কাঁপানো গান

১) পার্টি অল নাইট- বস

২) বস টাইটেল ট্র্যাক- বস

৩) শাড়ি কা ফলস- আর রাজকুমার

৪) গন্দি বাত- আর রাজকুমার

৫) ধাতিন নাচ- আর রাজ কুমার

৬) টট্টর- রামলীলা

৭) লত লগ গই- রেস টু

৮) বদতমিজ দিল- ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি

৯) বলম পিচকারি- ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি

১০) স্লোলি স্লোলি- গো গোয়া গন

Advertisement
---
-----

Comments are closed.