মুম্বই:  ফ্যাশনের ফুলঝুড়ি, গ্ল্যামারের ছটা, ফুলের ছাদনাতলা, লাল লেহেঙ্গা, ভাইদের আদর-সব মিলিয়ে জমকালো সোনমের বিয়ে। অনেকদিন পর এমন গ্র্যান্ড বিয়ের ঝলক দেখল টিনসেল।

মাসি কবিতা সিংয়ের বান্দ্রার হেরিটেজ বাংলো আজ সেজে উঠেছে কনের সাজে। দেশ-বিদেশের নানা ভেনুর জল্পনায় জল দিয়ে এখানেই বসেছে অনিল কন্যার বিয়ের আসরে।

Advertisement

রানি মুখোপাধ্যায় থেকে শুরু করে করিনা কাপুর, রেখা, অমিতাভ বচ্চন, আমির খান, জ্যাকলিন, রণবীর সোনমের বিয়েতে উপস্থিত প্রায় গোটা বলিউড।

সকল অতিথিদের অ্যাপায়নের জন্য গেটের বাইরে দাঁড়িয়ে ছিলেন অনিল কাপুর। সাদা পাজামা-পাঞ্জাবি আর নীল হার আর চোখে সানগ্লাস, কুল ড্যাডি অনিল কাপুর। বাড়ির মেয়ের বিয়ের আনন্দে সামিল কাকা সঞ্জয় কাপুর ও বনি কাপুরও।

পরণে লাল-লেহেঙ্গা। মাথায় ওড়না। হাতে চুড়া। কনের বেশে বোন সোনমেকে লাল চেলির ছায়ায় ছাদনাতলায় পৌঁছে দিলেন ভাইরা। যেখানে নীল পাঞ্জাবীতে সবার নজর কেড়েছেন অর্জুন কাপুর। একেবারে শিখ নিয়ম-কানুন মেনে সাতপাকে বাঁধা পড়েছেন সোনম।

সোমবার মেহেন্দি দিয়ে শুরু হয়েছে সোনমের বিয়ের জলসা। তারপর তা ছাপিয়ে গিয়েছে সংগীতের নাচে। আর আজ অনামিকা খান্নার পোশাকে কনের বেশে মিষ্টি মেয়েটি আজ মিসেস আহুজা।

তবে সোনমের গোটা বিয়েতে ফোকাসে ছিলেন শ্রীকন্যা জাহ্নবী কাপুর। তাঁর পোশাক স্টাইলে মাত দিয়েছেন সবাইকে। তবে শুধু জাহ্নবী নয় খুশির পোশাও ছিল নজর কাড়া। এদিকে সাদামাটা অনশূলাকে দেখা গেল গর্জাস লুকে।

বিয়ের আসরে সবাইকেই আজ দেখা যাচ্ছে ট্রাডিশনাল পোশাকে। কারণ সোনম-আনন্দের বিয়েতে এটাই ড্রেস কোড। তাইতো বাদ পড়েনি ছোট তৈমুরও। গোলাপি রঙেন পাঞ্জাবি পরে বাবা কোলে চড়ে সেও হাজির সোনমের বিয়েতে।

জানা যাচ্ছে, কাপুর এবং আহুজা পরিবারের পক্ষ থেকে পরে মুম্বইয়ের দ্য লীলা হোটেলে গ্র্যান্ড রিসেপশন দেওয়া হবে। রিসেপশনে অতিথিরা ওয়েস্টার্ন ফরমাল ড্রেস পরতেই পারেন। আসলে ফ্যাশনিস্তা সোনম চান তাঁর বিয়ে হোক একটু ইউনিক। তাই এই ব্যবস্থা।

কমন ফ্রেন্ড প্রেরণার মাধ্যমে আলাপ হয়েছিল আনন্দ- সোনমের। তারপর ২০১৪-য় আনন্দ প্রেম প্রস্তাব করার বেশ কয়েক মাস পরে সেই প্রস্তাব গ্রহণ করেন সোনম। যা ২০১৮ এর ৮ ই মে গড়াল বিয়ের সানাইয়ে।

ই-কার্ড-কাপুর পরিবার সেরেছেন সোনমের বিয়ের নেমন্ত্রণ পর্ব। হবু দম্পতির বক্তব্য বিয়ের কার্ড মানেই কাগজের অপচয়। আর কাগজ মানেই গাছ কাটা। তাই ই-কার্ডের ওপর ভরসা করছেন তাঁরা। ডিজিটাল দুনিয়ায় ডিজিটালি ইনাভইট করেছেন অথিতিদের৷

দিল্লির ব্যবসায়ী হরিশ আহুজার ছেলে আনন্দ আহুজা। দেশের সবথেকে বড় এক্সপোর্ট কোম্পানি শাহি এক্সপোর্টের মালিক তথা ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইনি। মাল্টি ব্র্যান্ড স্নিকার কোম্পানি ‘ভেজ নন ভেজ’র মালিক।

এছাড়াও ‘ভানে’ নামের একটি পোশাকের ব্র্যান্ডেরও মালিক তিনি। বর্তমানে আনন্দ ৩০০০ কোটি টাকার মালিক।

দিল্লির আমেরিকান এমব্যাসি স্কুল থেকে পড়াশোনা করেছেম আনন্দ। এর পরে পেনসিলভিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতি ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক নিয়ে পড়াশোনা করেছেন। হোয়ার্টন বিজনেস স্কুল থেকে এমবি করেন।

দেখে নিন সোনমের বিয়ের ভিডিও:

 

আরও পড়ুন: ডাকাত পড়ল বলিপাড়ায়

এরপর  ডোয়েশ ব্যাঙ্ক থেকে ইনটার্নশিপ। বাস্কেট বল খেলায় বিশেষ আগ্রহ আছে আনন্দের। আনন্দ আহুজার দুই ভাই রয়েছে অমিত ও অনন্ত আহুজা।

এদিকে আনন্দের এই দিনে শুভেচ্ছা বার্তার বদলে গালমন্দ শুনছেন নায়িকাকে। মাত্র ১০ সপ্তাহ আগে আকস্মিৎ মৃত্যু হয়েছে শ্রীদেবীর। আর এতো তাড়াতাড়ি সব দুঃখ ভুলে কীভাবে বিয়ের আনন্দে মজলেন কাপুর পরিবার! চারিদিক থেকে ছুটে আসছে এই প্রশ্ন। তার মাঝেই এক ব্যক্তির জিজ্ঞাসা, ‘সোনম কী প্রেগন্যান্ট? তাই কী চটকলদি সেরে ফেলছেন বিয়ে!’

আরও পড়ুন: ‘INDIAN DOGS’ বলে অপমান ভারতীয়দের, ট্যুইটারে ঝড় সামির

দেখে নিন সোনমের বিয়ের ভিডিও:

----
--