চুল বাঁধলে চুল পড়া বন্ধ

চুল পড়ার সমস্যা এবং চুল রুক্ষ্ম হয়ে যাওয়ার সমস্যা  আমাদের মধ্যে অনেকেরই রয়েছে। এই সমস্যাটি অনেকসময় চুল বেঁধে রাখার উপরেও নির্ভর করে। ভুল পদ্ধতিতে চুল বাঁধার কারণে চুল পড়ার শিকার হন অনেকেই। তাই আপনি কীভাবে চুল বাঁধছেন তার দিকে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন।
অনেকেই রাতে চুল খুলে রেখে ঘুমোতে পছন্দ করেন আবার অনেকে আবার টানটান করে বেঁধে রাখেন। তবে রাতের বেলাতে চুল খোলা রেখে না শোয়াটাই ভালো। কেননা এতে চুলের গোড়া নরম হয় এবং চুল পড়ার সমস্যা দেখা দেয়। পাশাপাশি চুল খোলা থাকার ফলে তা অনেক বেশি রুক্ষ্মও হয়ে যায়। তাই চুল বেঁধে শোয়াই চুলের পক্ষে ভালো। তবে মনে রাখা দরকার,  রাতে শোয়ার সময়ে চুল বাঁধা আর বাইরে কোথাও যাওয়ার সময়ের চুল বাঁধা কখনই একই রকম হবে না। আপনার যদি চুল একদম সোজা হয়ে থাকে তাহলে চুলগুলোকে এমনভাবে বাঁধুন যেন ঘুমোনোর সময় সেটা না খুলে যায়৷ বিশেষ করে যাদের কোঁকড়া চুল তারা চুল বাঁধার এই বিশেষ পদ্ধতিটি অবলম্বন করতে পারেন।
কিভাবে চুল বেঁধে রাতে শোবেন
বেশ কতগুলো ব্যান্ড দিয়ে চুলের গোড়া থেকে একেবারে আগা পর্যন্ত একটু তফাতে বাঁধুন। এমনভাবে বাঁধুন যেন চুলের চেয়ে ব্যান্ডই বেশি দেখা যায়। খেয়াল রাখবেন চুলের গোঁড়ার দিকটা যেন বেশ হালকাভাবেই বাঁধা হয়। কারণ টানটানভাবে চুল বাঁধলে ঘুমোতে বা শুতেও সমস্যা হতে পারে। এর কিছু বিশেষ উপকারিতা আছে। আর তা হল আলাদাভাবে স্ট্রেটনার দিসে চুল সোজা করার দরকার পড়ে না,  চুলে কোনো ধরনের ভাঁজ পড়ে না,  চুলে ময়লা জমে না,  চুলের উজ্জ্বলতা ঠিক থাকে,  চুলের মসৃণতা বজায় থাকে এবং স্বভাবিক ভাবেই চুলপড়া বন্ধ হয়৷