রোহিত শেখরকে সন্তানের স্বীকৃতি এনডি তিওয়ারির

নয়াদিল্লি: ছ’ বছরের আইনি যুদ্ধের পর অবশেষে রোহিত শেখরকে সন্তানের স্বীকৃতি দিলেন প্রবীণ কংগ্রেস নেতা নারায়ণ দত্ত তিওয়ারি৷ সামাজিক স্বীকৃতি পাওয়ার জন্য গত ছ’বছর ধরে এক কঠিন সংগ্রাম চালিয়েছে মা-ছেলে৷ বহু যুক্তি-তর্ক আর আবেগের সাক্ষী থেকেছে আাদালত৷ রবিবার রাতে দিল্লির গেস্ট হাউসে শেখর ও তাঁর মা উজ্জ্বলাকে আমন্ত্রণ করেন তিওয়ারি৷ সেখানেই শেখরকে সন্তানের স্বীকৃতি দেন এই অশীতিপর নেতা৷ তিনি বলেন, ‘ম্যায় হৃদয় সে মানতা হু কি তুম মেরে বেটে হো৷’ এর পরই প্রকাশ্যে শেখরকে সন্তান হিসেবে মেনে নেন তিওয়ারি৷
উত্তর প্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব সামলেছেন তিনি৷ ছিলেন অন্ধ্রপ্রদেশের রাজ্যপাল৷ ২০০৮ সালে সন্তানের স্বীকৃতি চেয়ে তিওয়ারের বিরুদ্ধে আদালতে যান শেখর৷ তাঁর দাবি, তিওয়ারি ও তাঁর মায়ের সম্পর্কের জেরেই তাঁর জন্ম৷ যে ব্যাক্তি ছোটবেলায় তাঁর জন্মদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতেন, শৈশবে খেলার সঙ্গী ছিলেন, সে তাঁকে সন্তানের স্বীকৃতি দিক৷ ২০১২ সালে ডিএনএ পরীক্ষা করার নির্দেশ দেয় দিল্লি হাইকোর্ট৷ এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যান  এই প্রবীণ নেতা৷ কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি৷ ডিএনএ পরীক্ষা করতে বাধ্য হন তিনি৷ সন্তানের স্বীকৃতি পাওয়ার পর রোহিত বলেন, ‘গত কয়েক বছরে আমার মা ও আমার ওপর দিয়ে যে ঝড় বয়ে গিয়েছে,তা যেন আর কারোর ওপর দিয়ে না যায়৷ তবে এবার তিক্ততা সরিয়ে এক স্নিগ্ধ পথে হাঁটতে চায় নতুন পরিবারের সদস্যরা৷ ছেলের সঙ্গে সময় কাটাতে চান বাবা৷ আর বাবাকে কাছ থেকে জানার ইচ্ছা প্রকাশ করল  ছেলে৷

Advertisement ---
---
-----