শ্যাম সেল-কাণ্ড: জামিন পেলেন অভিযুক্তরা

আসানসোল:জামিন পেলেন তৃণমূল নেতা অলোক দাস ও চঞ্চল বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার আত্মসমর্পণ করারপর জামিন পান তাঁরা। জামিন যোগ্য ধারাতেই মামলা ছিল তাঁদের বিরুদ্ধে। ৫০০টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন পেয়েছেন শ্যাম সেল কাণ্ডে অভিযুক্ত এই দুই তৃণমূল নেতা। আদালত চত্বরে ফুলের মালা দিয়ে তাঁদেরবরণকরেন দলীয় কর্মীরা।

(সর্বশেষ আপডেট: 05: 40)

দলীয় নির্দেশে আত্মসমর্পণ করলেন শ্যাম সেল কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত অলোক দাস। সেইসঙ্গে আত্মসমর্পণ করেন তাঁর সাগরেদ চঞ্চল বন্দ্যোপাধ্যায়ও। সোমবার এই ঘটনার কথা স্বীকার করে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। মানহানির মামলা করার আগেই আত্মসমর্পণ করেন তাঁরা। জামুরিয়া শ্যাম সেল কারখানা এই তৃণমূল নেতা অলোক দাসের তোলাবাজির মুখে পড়ে বন্ধ হতে চলেছিল। ইতিমধ্যেই অলোক দাসকে দল থেকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।

- Advertisement -

সোমবার তাদের আদালতে তোলা হচ্ছে। যদিও তাদের বিরুদ্ধে জামিন যোগ্য ধারায় মামলা রুজু হওয়ায় জামিন পেতে কোনও অসুবিধা হবে না বলেই জানা গিয়েছে।
গত ২১জুলাই নিজেকে নির্দোষ প্রমাণিত করতে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বকে চিঠি দেন বহিষ্কৃত নেতা অলোক দাস৷প্রসঙ্গত, গত শনিবার দলীয় কর্মীদের বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ ওঠায় নড়েচড়ে বসে তৃণমূল কংগ্রেস৷ বর্ধমানের জামুরিয়ার শ্যাম সেল অ্যান্ড পাওয়ার লিমিটেডে সন্ত্রাস চালানোর অভিযোগ উঠেছিল স্থানীয় তৃণমূলের যুব নেতা আলোক দাস ও তার সাগরেদের বিরুদ্ধে৷সমস্যা সমাধানে সংস্থার পক্ষ থেকে হস্তক্ষেপ চাওয়া হয়েছে খোদ মুখ্যমন্ত্রীর৷ এই অভিযোগের ভিত্তিতেই শনিবারই অলোক দাস-সহ দুই তৃণমূল নেতাকে সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্ত নেয় শীর্ষ নেতৃত্ব৷

Advertisement ---
---
-----