সিরিয়ার উপকূলের দিকে ধেয়ে যাচ্ছে ন্যাটোর বাহিনী

ওয়াশিংটন:  উত্তর আটলান্টিক চুক্তি সংস্থা বা ন্যাটো পূর্ব ভূমধ্যসাগরে তার নৌ উপস্থিতি ক্রমশ বাড়াচ্ছে। ইদলিব প্রদেশে রাসায়নিক সম্ভাব্য হামলার সাজানো নাটককে কেন্দ্র করে সিরিয়ার ওপর আমেরিকা ও তার মিত্ররা হামলা চালাতে পারে বলে যখন দিন দিন শংকা বাড়ছে তখন ন্যাটো বাহিনীর উপস্থিতি জোরদারের এই খবর প্রকাশ্যে এল।

ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলে পশ্চিমের নৌবাহিনীর তৎপরতা পর্যবেক্ষণকারী কয়েকটি ওয়েবসাইটকে কোট করে রাশিয়ার স্পুৎনিক বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, ন্যাটো মেরিটাইম গ্রুপ-২ এর কয়েকটি যুদ্ধজাহাজ সিরিয়ার উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, ন্যাটোর বহরে রয়েছে হল্যান্ড, কানাডা ও গ্রিসের কয়েকটি ফ্রিগেট।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র জানিয়েছে, ভূমধ্যসাগরে তৎপর মার্কিন নৌবহরের সঙ্গে যুক্ত হতে লস অ্যাঞ্জেলেস-ক্লাস সাবমেরিন রওনা দিয়েছে। এই সাবমেরিনে দীর্ঘপাল্লার সাবসনিক টমাহক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে। বেশ কিছুদিন থেকে আমেরিকা ও তার কয়েকটি মিত্র দেশ সিরিয়ার ইদলিবে সরকারি সেনাদের ওপর হামলার অজুহাত খুঁজছে। এর বিপরীতে সিরিয়া, রাশিয়া তার মিত্ররা বলছে, ইদলিবে রাসায়নিক হামলার নাটক সাজিয়ে আমেরিকা সিরিয়ার ওপর আগ্রাসন চালানোর ষড়যন্ত্র করছে। এর মাধ্যমে তারা জঙ্গিদের শেষ ঘাঁটি রক্ষা করতে চায়।

Advertisement
----
-----