হড়কাবানে ওড়িশায় মৃত ১৩

ওড়িশায় হড়কাবানে মৃত্যু হল ১০ জনের। দেড় লক্ষেরও বেশি মানুষ বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে হড়কাবানে। ওড়িশার গঞ্জাম জেলায় ১২৯টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে গিয়েছে। আগামী সোমবার পর্যন্ত বিপর্যস্ত এলাকার স্কুল এবং কলেজগুলি বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে ওড়িশা সরকার। খুরদা-বিশাখাপত্তনম রুটের বিমান চলাচল ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। শনিবার কটকে ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া এক দিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচটি বাতিল হয়ে যেতে পারে। বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, চারদিনের ভারি বৃষ্টিপাতের জেরে ওড়িশার বিভিন্ন জেলার নদীগুলি বিপদসীমার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়ার কারণে সৃষ্টি হয়েছে এই পরিস্থিতি। এই হড়কা বানে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছে চিকিতি, হিঞ্জিলি, সানা খেমুন্দি, পাত্রপুর, ধারাকোতে, আস্কা, মোহনা প্রভৃতি এলাকা। এই এলাকাগুলি থেকে মোট ৪০ হাজার মানুষকে নিরাপদ দূরত্বে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক বন্যা বিধ্বস্ত মানুষদের ক্যাম্পে রান্না করা খাবার পৌঁছে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। গত ১২ অক্টোবর ওড়িশা উপকূলে আছড়ে পড়েছিল ঘূর্ণিঝড় ফাইলিন।

Advertisement
---