রাজভবনের নীচ থেকে উঠে এল ব্রিটিশ আমলের বাঙ্কার

মুম্বই:  মহারাষ্ট্র রাজভবনের নীচে আবিষ্কৃত হল ব্রিটিশ আমলের বাঙ্কার । ১৫০ মিটার লম্বা ব্রিটিশ আমলের এই বাঙ্কারটি। মালাবার হিলসের নীচে এই পরিত্যক্ত বাঙ্কারটি আবিষ্কার করেছেন মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল বিদ্যাসাগর রাও।রাজভবনের নীচে যে একটি সুড়ঙ্গ আছে, তেমন একটা জনশ্রুতি ছিল বহু কাল ধরেই। কিন্তু সেই সুড়ঙ্গের খোঁজ করতে গিয়ে যে আস্ত একটা বাঙ্কার বেড়িয়ে পড়বে, তা বোধহয় আঁচ করতে পারেননি কেউই। কিন্তু জনশ্রুতি কিংবা জল্পনা কিছুটা হলেও সত্যি হয় তা কার্যত ফের আরও একবার প্রমাণিত হল।

bangkar-1

কিন্তু কীভাবে জানা গেল মাটির তলাতে রয়েছে বাঙ্কার রয়েছে? জানা গিয়েছে, মাস কয়েক আগে রাজ্যপাল  বিদ্যাসাগর রাও জানতে পারেন, রাজভবনের নীচে সম্ভবত একটি প্রাচীন সুড়ঙ্গ রয়েছে। শোনার পরেই শুরু হয়ে যায় খোঁজখবর নেওয়া। একই সঙ্গে যাতে বাঙ্কার রহস্যের কিনারা করা হয় তা দেখার নির্দেশ দেন তিনি। মাস তিনেক ধরে খোঁড়াখুড়ি করার পর হঠাত্ই গত শুক্রবার খোঁজ মেলে এক পুরনো দেওয়ালের। আর তা ভাঙতেই চোখ কপালে উঠে যায় উপস্থিত সকলের। আবিষ্কৃত হয় ১৫০ মিটার লম্বা একটি ব্রিটিশ আমলের বাঙ্কারের।

- Advertisement -

bangkar-2

বিশাল বাঙ্কারটি তাক লেগে যাওয়ার মতো। ১৩টি ছোট বড় ঘর, প্রতিটা ঘরে যাওয়ার জন্য একাধিক রাস্তা। একেবারে একটা গোটা ব্যাটেলিয়ান থাকার মতো সুব্যবস্থা। বাঙ্কারের বাইরে ২০ ফুটের লম্বা গেট। ৫ হাজার বর্গফুটের এই বিশাল বাঙ্কারে ছিল গান স্টোর, ম্যাগাজিন স্টোর, শেল স্টোর এমনকী পাম্পও। আলো এবং হাওয়া ঢোকার সুব্যবস্থাও ছিল সেখানে। ছিল অসামান্য পয়ঃপ্রণালী ব্যবস্থা। ঐতিহাসিকরা জানিয়েছেন, বর্তমান রাজভবন ছিল উচ্চপদস্থ ব্রিটিশ রাজকর্মচারী লর্ড রে-র বাসভবন। ১৮৮৫ সাল নাগাদ এই বাঙ্কারটি তৈরি করান তিনি। কিন্তু স্বাধীনতার পর পুরনো সেই বাসভবনের সংস্কারের ফলে চাপা পড়ে যায় এই বাঙ্কারটি।

Advertisement
---