ওয়াশিংটন: বৃহস্পতিবার গভীর রাতে জাপানের উপকূলে ভেঙে পড়ল দুটি মার্কিনি যুদ্ধবিমান৷ এই ঘটনায় ৬জন মার্কিন নৌসেনা নিখোঁজ৷ সংবাদসংস্থা এএফপিকে দেওয়া তথ্যে এমনই জানিয়েছে জাপান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকার৷

এফ-১৮ ফাইটার ও সি-১৩০ ট্যাঙ্কার বৃহস্পতিবার রাত দুটো নাগাদ জাপান উপকূল থেকে ২০০ মাইল দূরে ভেঙে পড়ে৷ মার্কিন যুক্তরাষ্টের পক্ষ থেকে এই খবরের সত্যতা স্বীকার করা হয়েছে৷ সংবাদসংস্থার তথ্য অনুযায়ী এই যুদ্ধবিমান দুটি দক্ষিণ জাপানের আইওয়াকুনি নৌসেনা ঘাঁটি থেকে উড়ান শুরু করে৷ কিন্তু তারপরেই এই বিমানদুটির সঙ্গে কোনও যোগাযোগ করা যায়নি৷ পরে বিমানদুটি ভেঙে পড়ার খবর মেলে৷ যদিও বিমানে থাকা নৌসেনাদের খোঁজ এখনও মেলেনি৷

জাপান সেল্ফ ডিফেন্স ফোর্সের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে নৌসেনার একজনকে উদ্ধার করা গিয়েছে৷ তবে বাকিদের খোঁজ নেই৷ আহত ওই জওয়ান চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়৷ নিখোঁজ জওয়ানদের খোঁজে তল্লাশি জারি রয়েছে বলে জানানো হয়েছে৷

সি-১৩০ যুদ্ধবিমানটিতে ৫ নৌসেনা জওয়ান ছিলেন৷ অন্যদিকে এফ-১৮ বিমানটিতে দুজন ছিলেন৷ জাপান সরকারের পক্ষ থেকে নিখোঁজদের উদ্দ্যেশে চারটি নৌবিমান ও তিনটি জাহাজ তল্লাশির কাজে লাগানো হয়েছে৷

ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে দ্রুত তল্লাশি শুরু করার জন্য জাপান সরকারকে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে৷ বিমানদুটি রুটিন মাফিক মহড়া চালাচ্ছিল বলেই খবর৷ কিন্তু কীভাবে এই দুর্ঘটনা ঘটল, তার হদিশ এখনও মেলেনি৷

এর আগে, জুন মাসেও জাপানের উপকূলে ভেঙে পড়ে মার্কিন ফাইটার জেট F15৷ পাইলটকে জাপানি ফোর্স উদ্ধার করতে পারে৷ জাপানি সংবাদসংস্থার খবর অনুযায়ী, আমেরিকার কাদেনা এয়ারবেসের বিমান ছিল এটি। নাহার ৮০ কিলোমিতার দক্ষিণে এই ঘটনা ঘটে। পাইলট আহত হয়েছেন বলে খবর।

জাপানের সবথেকে বড় ইউএস মিলিটারি বেস হল কাদেনা। এই সেনা ঘাঁটি অন্তত ৪৭,০০০ মার্কিন সেনা রয়েছে। এই ধরনের একাধিক দুর্ঘটনা বারবার ঘটেছে জাপানে। এমনকি গত জানুয়ারিতে জাপানের কাছে ক্ষমাও চান মার্কিন ডিফেন্স সেক্রেটারি জিম ম্যাটিস।

----
--