‘ফুটেজে প্রমাণিত পাকিস্তানে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করেছিল ভারত’

নয়াদিল্লি: জঙ্গি দমন নিয়ে পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দিতে আবারও সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করতে তৈরি ভারত৷ এমনটাই জানালেন অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল ডি এস হুডা৷ সেই সঙ্গে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের ফুটেজকে সঠিক কিন্তু সম্পাদন করা বলে জানান৷ এই ফুটেজ প্রকাশ্যে আসায় তিনি খুশি৷ কেননা পাকিস্তান যে দাবি করে এসেছিল কোনও সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়নি, এই ফুটেজ তাদের দাবিকে মিথ্যা প্রমাণ করে দেবে৷

২০১৬ সালে ২৯ সেপ্টেম্বর সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের তত্ত্বাবধানে ছিলেন ডি এস হুডা৷ সেই হামলার কথা মনে করে তিনি জানান, উধমপুরের কন্ট্রোল রুম থেকে গোটা ঘটনাটি মনিটর করা হয়েছিল৷ প্রায় ছ’ঘণ্টা ধরে চলে এই অপারেশন৷ শেষ হামলাটি হয় সকাল ৬টা ১৫মিনিটে৷ অপারেশনের গোটা ভিডিও ড্রোন ক্যামেরায় তুলে রাখা হয়৷

সম্প্রতি একটি সর্বভারতীয় মিডিয়া দু’বছর আগের সেই হামলার ভিডিও ফুটেজ সামনে আনে৷ এই সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘‘ওই ফুটেজ একদম সঠিক৷ আমি নিজে সেটা দেখেছি৷ ভিডিও প্রকাশ্যে আসায় ভালো হয়েছে৷ সীমান্ত পেরিয়ে পাক এলাকায় ঢুকে ভারতীয় জওয়ানরা জঙ্গি ঘাঁটি গুড়িয়ে দিয়েছে৷ এটা পাকিস্তান বারবার অস্বীকার করতে থাকে৷ এই ফুটেজ দেখার পর কোনও দ্বিধা থাকবে না কারোর মধ্যে৷ আমি ব্যক্তিগত ভাবে চাইতাম ওই ফুটেজ প্রকাশ্যে আসুক৷’’ অবসরপ্রাপ্ত সেনা জেনারেল জানান, ভিডিও সম্পাদন করা ঠিকই৷ স্পর্শকাতর বিষয়গুলিকে সেখানে দেখানো হয়নি৷

- Advertisement -

ওই সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর অনেকেই মনে করেছিলেন সন্ত্রাসে লাগাম পড়ানো গিয়েছে৷ কিন্তু বাস্তবে তার উলটোটাই হয়েছে৷ প্রশ্ন ওঠে আদৌ সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর কোনও লাভ হয়েছে? কাশ্মীরে জঙ্গি হামলা বহুগুণ বেড়ে গিয়েছে৷ এই প্রসঙ্গে ডিএস হুডা বলেন,‘‘যখন সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করা হয় তখন কেউ এটা একবারের জন্য ভাবিনি পাকিস্তান জঙ্গিদের মদত করা বন্ধ করে দেবে৷ আমরা শুধু পাকিস্তান ও জঙ্গি সংগঠনগুলিকে কড়া বার্তা দিতে চেয়েছিলাম৷ উরি হামলার বদলা নিয়েছিলাম৷ উরি হামলার পর অনেকেই প্রশ্ন তুলেছিল সেনা এবার কী করবে? এটাই ছিল সেই জবাব৷’’

Advertisement ---
-----