১১০ ফুট গভীর কুয়োয় তিন বছরের শিশু

ফাইল ছবি

পাটনা: বাড়ির সামনে খেলা করছিল বছর তিনেকে ছোট্ট সান্নো৷ খেলতে খেলতে কখন নির্মীয়মাণ কুয়োর সামনে চলে এসেছিল, তা জানতে পারেননি কেউই৷ আচমকাই ১১০ ফুট গভীর ওই গর্তে পড়ে যায় সান্নো৷
বিহারের মুঙ্গের জেলার কোতয়ালি থানার এলাকার মুরগিয়াচকের ঘটনা৷ তারপর থেকে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় শুরু হয়েছে উদ্ধার কাজ৷

স্টেট ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স বা এসডিআরএফের আধিকারিক সঞ্জীব কুমার জানাচ্ছেন ওই ১১০ ফুট গভীর গর্তের মধ্যে অক্সিজেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ যাতে শিশুটির শ্বাসকষ্ট না হয়৷

ছবি সৌজন্যে-এএনআই

ওই গর্তের চারপাশের লোহার রড দিয়ে ঘিরে রাখা হয়েছে, যাতে ওপর থেকে তা ভেঙে শিশুর ওপর না পড়তে পারে৷ এই উদ্ধারকাজ শেষ করতে ঘন্টা পাঁচ-ছয় লাগতে পারে বলে মনে করছেন প্রশাসনিক আধিকারিকরা৷
সারাক্ষণ শিশুটির ওপর সিসিটিভির সাহায্যে নজর রাখছেন উদ্ধারকারীরা৷ ব্যবস্থা করা হয়েছে আলোর৷

ঘটনাস্থলে উপস্থিত রয়েছেন বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ প্রশাসনিক আধিকারিক৷ রয়েছেন মেয়র রুমা রাজ, সাব ডিভিশনাল অফিসার খগেশ চন্দ্রা ঝা, এএসপি হরিশঙ্কর কুমার, বিডিও পঙ্কজ কুমার এবং দুটি থানার পুলিশ আধিকারিকরা৷

কয়েক মাস আগেই ওড়িশায় আঙ্গুল জেলায় এই ধরণের একটি ঘটনা ঘটে৷ সেখানে তিন বছরের একটি শিশু খোলা কুয়োয় পড়ে যায়৷ উদ্ধার করে ওড়িশা ডিজাস্টার রাপিড অ্যাকশন ফোর্স৷ রাধা নামে ওই শিশুটি প্রায় ৫০ মিটার গভীর গর্তে পড়ে যায় বলে খবর৷ ঘটনাস্থলে যায় দমকল ও পুলিশ৷

----
-----