শান্তির বার্তা নিয়ে উদযাপিত ৭০তম হিরোশিমা দিবস

হিরোশিমা: "Little Boy" আর "Fat Man" দুটো বিস্ফোরণ। শেষ হয়ে গিয়েছিল কয়েক লক্ষ জীবন। ৭০ বছরের আগের সেই দিনটিকে স্মরণ করল জাপান। উদযাপিত হল ৭০তম হিরোশিমা দিবস।  প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে পরমাণু বোমামুক্ত একটি বিশ্ব গড়ে তোলার জন্য আহ্বান জানালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা সহ সব বিশ্বনেতাদের। পরমাণু অস্ত্র-বিহীন পৃথিবী তৈরি করতে। সকাল আটটা ১৫ মিনিটে হিরোশিমা 'পিস পার্ক'-এ দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করলেন জাপানবাসী।
আমেরিকার তৈরি পরমাণু বোমা "Little Boy" ছিল দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রথম পরমাণু বোমা। বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছিল ১ লক্ষ ৪০ হাজার মানুষের। তিনদিন পর নাগাসাকিতে বিস্ফোরণ ঘটানো হয় আরও একটি পরমাণু বোমা "Fat Man". মৃত্যু ৭০ হাজার মানুষের। এর পরেই দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিঃশর্তে আত্মসমর্পণ করে জাপান। ওই ঘটনার পরেও এই দুই বিস্ফোরণে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ প্রভাবে জাপানে মৃত্যু হয় আরও চার লক্ষ মানুষের।
১৯৪৫ সালের ৬ আগস্ট জাপানের স্থানীয় সময় সকাল আটটা ১০ মিনিটে হিরোশিমার আকাশে উড়ে এসে আমেরিকার বোমারু বিমান এনোলা গে হামলা চালায়। বোমাটি মাটি থেকে প্রায় ৬০০ মিটার উঁচুতে বিস্ফোরিত হয়। সেই অ্যাটম বোমার বিস্ফোরণের ক্ষত আজও বয়ে বেড়াতে হচ্ছে হিরোশিমাবাসীকে। পরমাণু বোমার তেজষ্ক্রিয়তার প্রভাব কয়েক প্রজন্ম জুড়ে দেখা যায়, যখন এই কারণে জন্ম নেয় বিকলাঙ্গ শিশু।
এদিন অ্যাবে বলেন, ‘পরমাণু বোমার আঘাতে শুধু হাজারো মানুষের মৃত্যুই হয়নি, অবর্ণনীয় কষ্ট ও যন্ত্রণা সহ্য করতে হয়েছে লাখো মানুষকে। তবে হিরোশিমা আজ সেই ক্ষত কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হয়েছে। এটি এখন সংস্কৃতি ও সমৃদ্ধির শহরে পরিণত হয়েছে। তবে পরমাণু বোমা হামলার ৭০ বছর পূর্তিতে দাঁড়িয়ে আমি বিশ্বশান্তির গুরুত্ব আবারও উল্লেখ করছি।’ এদিন তাঁরা শান্তিকামনায় শান্তির বার্তা লেখা কাগজ উড়িয়ে দেন।

Advertisement
----
-----