সিন্ধু সভ্যতা কেন হারিয়ে গেল? উত্তর খুঁজল খড়গপুর আইআইটি

খড়গপুর: সিন্ধু সভ্যতার কথা জানা যায় ইতিহাসের পাতায়। ৪,৩৫০ বছর আগে অবলুপ্ত হয়ে গিয়েছে সেই সভ্যতা। এবার সিন্ধু নদের তীরে গড়ে ওঠা প্রাচীন সেই সভ্যতা নিয়ে নতুন তথ্য দিল খড়গপুর আইআইটি।

একাধিক তথ্য প্রমাণ জোগাড় করে খড়গপুর আইআইটির গবেষকরা জানতে পেরেছেন অন্তত ৯০০ বছরের খরায় সম্পূর্ণ বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছে সেই সভ্যতা। চলতি মাসেই এই গবেষণার কথা প্রকাশিত হবে ‘কোয়াটার্নারি ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল’-এ।

গত ৫০০০ বছর ধরে বর্ষা বা বৃষ্টির ছবিটা ভারতে ঠিক কেমন, এই বিষয়ে গবেষণা করতে গিয়েই দেখা গিয়েছে একসময় উত্তর-পশ্চিম হিমালয়ের বুকে ব্যাপক খরা হয়েছে। বৃষ্টি প্রায় হয়নি বললেই চলে। একে একে শুকিয়ে গিয়েছে নদী। জলের সমস্ত উৎসব ক্রমে বন্ধ হয় যায়। ফলে সেখানকার কিছু মানুষ সরে যান উত্তর-পূর্বে।

- Advertisement -

লেহ-লাদাখ অঞ্চলের ৫০০০ বছরের বর্ষার একটা মানচিত্র তৈরি করেছে আইআইটির গবেষকেরা। দেখান গিয়েছে, কখনও বর্ষা হয়েছে খুব ভাল। আবার কখনও একটু দুর্বল।

আরও জানা গিয়েছে, ৪,৩৫০ বছর আগে অর্থাৎ ২৩৫০ খ্রিষ্ট পূর্বাব্দ থেকে ১৪৫০ খ্রিস্ট পূর্বাব্দ পর্যন্ত বর্ষার চেহারা ছিল অত্যন্ত দুর্বল। যেসব জায়গায় মানুষের বসবাস ছিল, সেখানে হয়েছিল ব্যাপক খরা। ফলে মানুষজনকে সরে যেতে হয়েছিল।

এভাবেই দেশের বর্ষার অতীত খুঁজে ভবিষ্যতের ছবিটা নির্মাণ করতে চাইছেন গবেষকরা।

Advertisement
---