প্রতিবাদী মহিলাকে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক মার দুষ্কৃতীদের

স্টাফ রিপোর্টার, ক্যানিং: মদ্যপান করে গ্রামের মহিলাদের কটূক্তি, শ্লীলতাহানি করার প্রতিবাদ করে আক্রান্ত হলেন এক দম্পতি। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিং থানার দীঘিরপাড় গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার কালীমন্দির গ্রামে।

অভিযুক্তদের নাম পরিতোষ মণ্ডল, রমেন নস্কর সহ বেশ কয়েকজন। এই ঘটনায় মোট তিনজন গুরুতর জখম হয়েছেন। আহতদের ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে৷ ক্যানিং থানায় অভিযোগ দায়ের হলেও এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক বা গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

আরও পড়ুন: কীভাবে কমাবেন কাজের চাপ? জানুন সহজ উপায়

অভিযোগ, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এলাকার কয়েকজন দুষ্কৃতী মদ খেয়ে এক মহিলার বাড়ির সামনে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। গালিগালাজ শুনে বাড়ি থেকে বেরিয়ে প্রতিবাদ করলে মদ্যপরা ঝাঁটা, লাঠি, রড দিয়ে ওই গৃহবধূকে রাস্তায় ফেলে ব্যাপক মারধর করে৷

ঘটনাটি চোখের সামনে দেখে প্রথমে হতভম্ব হয়ে পড়েন সকলে। স্ত্রীকে বাঁচাতে এগিয়ে যান স্বামী শ্যামল মণ্ডল৷ এগিয়ে যান ছেলে কিংকর মণ্ডলও৷ সেই সময় মদ্যপ যুবকরা বাবা ও ছেলেকে বেধড়ক মারধর করে পালিয়ে যায়।

আরও পড়ুন: সুখবর! জিও গ্রাহকরা পাবেন এই অ্যাপ দুটি

ঘটনাস্থলে গুরুতর জখম হন ওই গৃহবধূ। প্রতিবেশীরা তাঁকে গুরুতর জখম অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করেন৷ তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ বিষয়ে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি, এলাকার কয়েকজন দুষ্কৃতী এই ধরনের অপরাধমূলক কাজ করেই চলেছে। এ বিষয়ে পুলিশ প্রশাসনকে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: যশোর রোডে গাছ কাটতে মিলল হাইকোর্টের অনুমতি

----
-----