নয়াদিল্লি: টুরিস্ট-ফ্রেন্ডলি হিসেবে রাজধানীর নাম প্রচারের সিদ্ধান্ত নিল আপ সরকার৷ সোশ্যাল নেটওয়াকিং সাইটকে ব্যবহার করা হবে প্রচারের জন্য৷ দিল্লি সরকারের পর্যটন বিভাগ পরিকল্পনাটি করেছে৷

দিল্লিতে একাধিক টুরিস্ট-স্পট রয়েছে৷ যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল বিভিন্ন মন্দির৷ যেগুলির বিষয়ে অনেকেই হয়ত জানেন না৷ তাই, প্রয়োজন পড়ছে প্রচারকার্যের৷ যার উপযুক্ত মাধ্যম হিসেবে বাছা হয়েছে ফেসবুক, ট্যুইটার, ইনস্টাগ্রামকে৷

দিল্লিকে অনেকেই ঐতিহ্যের শহর বলে চেনেন৷ যার প্রধান কারণ হল স্মৃতিসৌধ৷ আগামী সেপ্টেম্বর থেকে সোশ্যাল নেটওয়াকিং সাইট নিযুক্ত করা হচ্ছে কাজটির জন্য৷ সংস্থাগুলির কাজই হবে শহরের ভাবমূর্তির উন্নয়ন করা৷ সংবাদ সংস্থার তথ্য অনুসারে, সোশ্যাল মিডিয়া বিভিন্ন পরিকল্পনা করবে এবং সেগুলিকে বাস্তবায়িত করা দায়িত্বে থাকবে৷ আর, এভাবেই সম্ভব হবে দিল্লির ব্রান্ডিং৷

রাজধানীতে প্রচারকাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে৷ হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে পাঁচটি ছোট ভিডিও এবং বেশ কয়েকটি রেডিও জিঙ্গেল৷ এছাড়াও, ‘টুরিস্ট-লিটারেচর’ প্রকাশ করা হবে৷ ভবিষতে পরিকল্পনা রয়েছে অনেকই৷ দিল্লিকে আন্তর্জাতিক মানের শহরে পরিণত করা যার মধ্যে একটি৷ যাতে বেশি সংখ্যক পর্যটক দিল্লিতে আসেন সে সব ব্যবস্থাই নেওয়া হবে সরকার দ্বারা৷ প্রয়োজনে নেওয়া হবে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ৷

----
--