দিল্লিতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি অভিষেকের

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে তৃণমূলের নিশানায় কেন্দ্র৷ শহরের বুকে প্রতিবাদ মিছিল শেষে প্রধানমন্ত্রী মোদী’র সমালোচনায় সরব তৃণমূল নেতৃত্ব৷ সোমবারের আন্দোলনে কাজ না হলে রাজধানীর বুকে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়ে রাখলেন যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বনধকে ‘কর্মনাশা, সর্বনাশা’ বলেন তিনি৷

ক্রমাগত বাড়ছে জ্বালানীর দাম৷ মহার্ঘ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষ৷ বিশ্ব বাজারে ব্যারল প্রতি অপরিশোধিত তেলের দাম বাড়ার ফলেই এই বৃদ্ধি, সাফাই দিচ্ছে কেন্দ্র৷ প্রতিবাদে মুখর বিরোধীরা৷ বাম-কংগ্রেস ভারত বনধের ডাক দিলেও তাতে সামিল হয়নি রাজ্যের শাসক দল৷ বরং, কলকাতায় মৌলালী থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত মিছিল করে তৃণমূল৷

ধর্মতলায় অভিষেক বলেন, ‘‘বিরোধীরা বলছেন রাজ্য স্তব্ধ৷ কিন্তু এদিনের ছবিই বলে দিচ্ছে বনধকে বন্ধ করে দিয়েছেন রাজ্যবাসী৷’’ এর আগেও পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে পথে নেমেছিলল তৃণমূল৷ সেই কথা স্মরণ করিয়ে দেন যুব তৃণমূল সভাপতি৷ বিজেপির বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক রাজনীতির অভিযোগ তুলে অভিষেক বলেন, ‘‘ধর্মের রাজনীতি করে আসল সমস্যা থেকে মুখ ফিরিয়ে রেখেছে মোদী সরকার৷’’

ভোট এলেই তৎপরতা বাড়ে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী বিভিন্ন সংস্থার৷ বিগত কয়েক বছর ধরেই এই অভিযোগ করে আসছেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷ এদিনের ভাষণে তারই প্রতিধ্বনি শোনা গেল অভিষেকের মুখে৷ কেন্দ্রীয় শাসক দলকে ডায়মণ্ডহারবারের সাংসদের বার্তা, ‘‘তৃণমূলকে ধমকে চমকে কিছু হবে না৷ দাম বাড়লে আন্দোলন হবে৷ পেট্রল, ডিজেলের দাম বাড়র প্রতিবাদে আগামীতে দিল্লির বুকে আন্দোলন গড়ে তুলবে তৃণমূল৷’’

এদিনের প্রতিবাদ মিছিলে হাঁটেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় রাজ্যসভার সাংসদ শুভাসিশ চক্রবর্তীরা৷

তৃণমূল মহাসচিব প্রতিবাদ মিছিল থেকে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে ‘‘ভেদেভেদের সরকার, বিজ্ঞাপণের সরকার’’ বলে কটাক্ষ করেন৷ তাঁর দাবি সংগঠনের শক্তি নেই বলেই কংগ্রেসের সুরে সুর মিলিয়ে ১২ ঘন্টার বনধ ডেকে দায় সেড়েছে বামেরা৷ প্রতিবাদ মিছিলে সামিল অন্যান্যরাও সরব হন কেন্দ্রীয় নীতির বিরুদ্ধে৷

নোট বন্দি থেকে জিএসটি৷ কেন্দ্রীয় নীতির প্রতিবাদে ঝাঁপিয়েছে তৃণমূল৷ সেই তালিকায় সংযোজন জ্বালানীর মূল্য বৃদ্ধি৷ ১৯শের ভোটের আগে এই প্রতিবাদের বহর আরও তীব্রতর করে বাংলায় ৪২-এ ৪২ লক্ষ্য সফলের দিকে এগোতে মরিয়া জোড়া ফুল শিবির৷

Advertisement
---
-----