উচ্চ মাধ্যমিকে সফল পরীক্ষার্থীদের প্রায় অর্ধেক পেল ফার্স্ট ডিভিশন

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: এই বছরের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় মোট পাশের হার ৮৩.৭৫ শতাংশ৷ আর উত্তীর্ণদের মধ্যে ৩৭.৮৩ শতাংশ অর্থাৎ, প্রায় অর্ধেক সফল পরীক্ষার্থী ফার্স্ট ডিভিশন পেয়েছে৷

এই বছর উচ্চ মাধ্যমিকে অংশগ্রহণ করতে নথিভূক্ত হয়েছিল ৮ লক্ষ ২৫ হাজার ৩৩৫ জন পড়ুয়া৷ তাদের মধ্যে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিল ৮ লক্ষ ৪ হাজার ৮৯৫ জন পরীক্ষার্থী৷ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে ৬ লক্ষ ৬৩ হাজার ৫১৬ জন পরীক্ষার্থী৷ এই বছরের মোট পাশের হার ৮৩.৭৫ শতাংশ৷

শুক্রবার সকালে ফলাফল প্রকাশের পর দেখা গিয়েছে মোট পাশের মধ্যে ২ লক্ষ ৫০ হাজার ৯৯৬ জন পরীক্ষার্থী ৬০ শতাংশ ও তার উপরে নম্বর পেয়েছে৷ অর্থাৎ, মোট পাশের ৩৭.৮৩ শতাংশ পড়ুয়া ফার্স্ট ডিভিশন৷ অপরদিকে ৪০ থেকে ৪৯ শতাংশ নম্বর পেয়েছে এমন সফল পরীক্ষার্থীর সংখ্যাটাও অনেকটাই বেশি৷ মোট পাশের ৩০.৪৩ শতাংশ ছাত্রছাত্রী ‘সি’ গ্রেড পেয়েছে৷

- Advertisement -

২ লক্ষ ১ হাজার ৮৯৯ জন৷ কেন এত বেশি ছাত্রছাত্রী কম নম্বর পেল৷ পশ্চিমবঙ্গ উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস বলেন, ‘‘উঁচুতে কী সবাই যাবে? এক লক্ষ ছাত্রছাত্রী কী ফার্স্ট হবে? পাশ করেছে প্রায় সাড়ে ছয় লক্ষ৷ তার মধ্যে আড়াই লক্ষ ফার্স্ট ডিভিশন পেয়েছে৷ সেটাও তো দেখতে হবে৷’’

পার্সেন্টাইল অনুযায়ী, ‘O’ গ্রেড অর্থাৎ, ৯০ থেকে ১০০ শতাংশ নম্বর পেয়েছে ৫ হাজার ২৪৮ জন৷ ‘A+’ অর্থাৎ, ৮০ থেকে ৮৯ শতাংশ পেয়েছে ৪১ হাজার ৪২৮ জন৷ ৮৩ হাজার ১৩২ জন পেয়েছে ‘A’ গ্রেড অর্থাৎ, ৭০ থেকে ৭৯ শতাংশ৷ ১ লক্ষ ২১ হাজার ১৫৩ জন ৬০ থেকে ৬৯ শতাংশ নম্বর পেয়ে ‘B+’ গ্রেড পেয়েছে৷ এই সবকটি গ্রেডকেই একযোগে ফার্স্ট ডিভিশন বলা চলে৷

আবার ৫০ থেকে ৫৯ শতাংশ পেয়ে ‘B’ গ্রেড পাওয়া সফল পরীক্ষার্থীদের সংখ্যাটাও কম নয়৷ মোট ১ লক্ষ ৬৮ হাজার ৫০১ জন এই গ্রেড পেয়েছে৷ সব শেষে ৩০ থেকে ৩৯ শতাংশ নম্বর পেয়ে ‘P’ গ্রেডের অধীনে রয়েছে ২ হাজার ২৩৮ জন৷ অসফল হয়েছেন ১ লক্ষ ৪১ হাজার ৩৭৯ জন পরীক্ষার্থী৷ তবে তাদেরকে হতাশ না হয়ে পরের বছর ভালো ফলাফল করে সফল হওয়ার বার্তা দিয়েছেন সংসদের সভাপতি৷

Advertisement
---