স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ব্যক্তিগত বন্ডে বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের আগাম জামিনের আবেদন মঞ্জুর করল আদালত৷বিশ্ব বাংলা লোগো ইস্যুতে নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে মুকুলবাবুর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা রুজু করেছিলেন তৃণমূলের যুবরাজ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ওই মামলাতেই এদিন ১হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে মুকুল রায়ের আগাম জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন ১২ নম্বর মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট পূর্বা কুণ্ডু৷মামলার পরবর্তী শুনানি হবে আগামী ৩০ জানুয়ারি।

যদিও নিজের বক্তব্যে অনড় রয়েছেন মুকুলবাবু৷ এদিন আগাম জামিনের পর মুকুলবাবু বলেন, ‘‘আমি কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স মিনিস্ট্রি থেকে কাগজ এনে দেখিয়ে দেব বিশ্ববাংলার মালিকানা ছিল অভিষেক ব্যানার্জির নামে।’’ প্রসঙ্গত, গত ১০ নভেম্বর রানি রাসমণি রোডে বিজেপির সভা থেকে বিশ্ববাংলা ও জাগো বাংলার মালিকানা প্রসঙ্গে বোমা ফাটিয়েছিলেন মুকুলবাবু। হাতের এক তাড়া কাগজ দেখিয়ে তৃণমূলের প্রাক্তন চাণক্য বলেছিলেন, ‘‘‘‘বিশ্ববাংলা কোনও সরকারি প্রতিষ্ঠান নয়। এই প্রতিষ্ঠানের মালিক মুখ্যমন্ত্রীর ভাইপো অভিষেক।’’

সেসময় মুকুলবাবুর বক্তব্য খণ্ডন করতে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করতে দেখা যায় রাজ্য দুই সচিবকে৷ এরপরই মুকুলবাবুর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেন অভিষেক৷ যদিও বরাবরই নিজের বক্তব্যে অনড়ই থেকেছেন মুকুল৷ রীতিমতো সাংবাদিক বৈঠক করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হলফনামা দেখিয়ে বলেন, ‘‘নিজে হলফনামা দিয়ে আলিপুর আদালতে অভিষেক বলেছেন, যা কিছু করেছেন সব মমতা ব্যানার্জির নির্দেশে করেছেন।’’

এরপরই মুকুলবাবু প্রশ্ন তোলেন, ‘‘বিশ্ববাংলা ইস্যুতে কে সত্যি বলছেন? মুখ্যমন্ত্রী নাকি তাঁর ভাইপো?’’ তাৎপর্যপূর্ণভাবে এরপরই বিধানসভায় দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী স্বীকার করেন, ‘বিশ্ববাংলা তাঁর সৃষ্টি৷ তিনি এটা রাজ্য সরকারকে ব্যবহার করতে দিয়েছেন৷’’ পাল্টা হিসেবে সাংবাদিক বৈঠক করে মুকুল রায় প্রশ্ন তোলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রী যদি বিশ্ব বাংলার লোগো রাজ্য সরকারকেই দেন, তাহলে আবার অভিষেক ব্যানার্জি কি করে বলছেন মমতা ব্যানার্জির নির্দেশে উনি ট্রেড মার্কের আবেদন করেছেন।’’

যদিও মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা দায়ের করার পর অভিষেক বলেছিলেন, ‘‘মুকুল রায় অভিযোগ প্রমাণ করতে পারলে রাজনীতির আঙিনায় আর পা রাখব না৷নতুবা ওঁনাকে বাংলা ছাড়তে হবে৷’’ এদিন মুকুলবাবু বলেন, ‘‘অপেক্ষা করুন৷ সবকিছুই আমি প্রকাশ করে দেব৷’

--
----
--