‘রাতে ঘরে ঢুকে একসঙ্গে কয়েকজন পুরুষ আমার শরীর নিয়ে খেলল’

দিনের পর দিন যৌনদাসী হিসাবে আটকে রাখার অভিযোগ কিশোরীকে।  শেষমেশ, খবর পেয়ে ওই বাড়ি থেকে কিশোরীকে উদ্ধার করল অস্ট্রেলিয়ার সিডনির পুলিশ।  উদ্ধার হওয়া কিশোরী আফ্রিকার গিনির বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে।  এভাবে দিনের পর দিন যৌনদাসী হিসাবে কাজ করানোর জন্যে ইতিমধ্যে বাড়ির মালিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।   চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে ।

নিউ সাউথ ওয়েলসের পুলিশ জানিয়েছে, চলতি বছরের এপ্রিলে এক ব্যক্তি ঘর পরিষ্কারের কাজের জন্য ১৭ বছর বয়সী ওই কিশোরীকে সিডনিতে নিয়ে আসে।  ২৭ এপ্রিল পালিয়ে যাওয়ার আগে একটি ঘরে আটকে রেখে বেশ কয়েকজন পুরুষ ওই কিশোরীর ওপর যৌন নির্যাতন চালিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। শুধু তাই নয়, ওই কিশোরীর মতে, কয়েকজন পুরুষ আমার শরীরের সঙ্গে যা তা নোংরামি করল।  আর মুখ বুঝে তা সহ্য করতে হল।

মানব পাচার এবং যৌন নির্যাতনের তদন্তে পুলিশের বিশেষ দল কাজ করছে।   ওই কিশোরী পুলিশকে জানিয়েছে, গিনিতে এক লোক তাকে কাজের লোভ দেখায়।  জানুয়ারিতে তারা দেশ ছাড়ে।  পরে বেশ কিছুদিন ঘুরে প্যারিস হয়ে এপ্রিলে ওই লোক তাকে সিডনিতে নিয়ে আসে।  কিশোরীটি সিডনির ওই বাড়ি থেকে পালিয়ে গেলে এক মহিলা তাকে সাহায্য করে।  তিনি ওই কিশোরীকে অজ্ঞাত স্থান থেকে তুলে একটি কমিউনিটি সেন্টারে পৌঁছে দেন।  পরে তাকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়।

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, বাড়ির মালিককে গ্রেফতার করা হলেও, পুরো ঘটনার পিছনে কারা কারা রয়েছে তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

---- -----