নিকটে বেদের মেয়ে জোসনা, আপ্লুত নায়ক কাঞ্চন

ঢাকা: দেখা যদি হল সখী… হয়ত এমনই বা নয়৷ মাঝে কেটে গিয়েছে অন্তত ২২টি বছর৷ এর মাঝে পদ্মা-গঙ্গা দিয়ে বয়ে গিয়েছে অনেক জল৷ কিন্তু তাদের দেখা হয়নি৷ তবে কথা হয়েছে টেলিফোনে৷ তাও দু দশক পার করে ফের দেশে ফেরার পর৷ রবিবার বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে দেখা হল বেদের মেয়ে জোসনার সঙ্গে তার নায়কের৷ আর দেখা হতেই অন্য মুহূর্ত৷

বেদের মেয়ে জোসনা অঞ্জু ঘোষ দীর্ঘ ২২ বছর কলকাতায় কাটিয়ে কয়েকদিনের জন্য বাংলাদেশে এসেছেন৷ রবিবার তাঁর সঙ্গে দেখা হল বিখ্যাত সেই ছবির বাংলাদেশি নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের৷ বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে ব্যবসাসফল চলচ্চিত্র ‘বেদের মেয়ে জোসনা’র জনপ্রিয় জুটি তাঁরা৷ এই ছবি পরে পশ্চিমবঙ্গেও মুক্তি পায় নবরূপে৷ সেখানে অঞ্জুদেবীর বিপরীতে অভিনয় করেন চিরঞ্জিত৷ পরে অঞ্জু চলে গিয়েছিলেন কলকাতায়৷ সেখানে যাত্রায় অভিনয় করেন তিনি৷

এদিকে বাংলাদেশি নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন জানিয়েছেন, ‘অঞ্জুর সঙ্গে আমাদের দেখা নেই ২৩ বছর ধরে। দুদিন আগে ফোনে তার সঙ্গে কথা বলেছি৷ আমি প্রথমে তার গলা বুঝতে পারিনি। যখন বুঝতে পারলাম আমি অঞ্জুর সঙ্গে কথা বলছি, তখন চোখে পানি চলে এলো। অনেক বছর পর কথা হচ্ছে, এটা মনে ছিল না। অনেকক্ষণ আমরা কথা বলেছি। সে অনেক কথা। আসলে এত কথা জমা হয়ে আছে, তা বলে শেষ করা যাবে না।’

- Advertisement -

২২ বছর আগে, ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ ছাড়েন অঞ্জু ঘোষ। তখন থেকেই কলকাতায় বসবাস করছেন এই নায়িকা। কলকাতায় বেশ কিছু চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন তিনি। অঞ্জুর প্রকৃত নাম অঞ্জলি। ১৯৭২ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রামের মঞ্চনাটকে অভিনয় করেন। ১৯৮২ সালে চলচ্চিত্র নির্মাতা এফ কবির চৌধুরী চলচ্চিত্রে আনেন তাঁকে। অঞ্জুকে নিয়ে তৈরি করেন ‘সওদাগর’। এরপর ১৯৮৯ সালে ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ তাঁকে এনে দেয় তুমুল জনপ্রিয়তা। ঢালিউডে প্রায় ৫০টি ছবির অভিনেত্রী তিনি।

Advertisement
-----