লন্ডন: প্রায় ৬০ বছর আগে ভারতীয় জাদুঘর থেকে হারিয়ে গিয়েছিল প্রাচীন বৌদ্ধমূর্তি৷ ব্রোঞ্জের তৈরি মূর্তিটি এবার লন্ডন থেকে ভারতে ফিরছে বলে সূত্রের খবর৷ অমূল্য এই মূর্তিটি ভারতের সম্পদ৷

লন্ডনের একটি নিলামে এই মূর্তিটিকে দেখেন বিশেষজ্ঞরা৷ তারপরেই নড়েচড়ে বসেন তাঁরা৷ উদ্যোগ নেন মূর্তিটিকে দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে৷ বুধবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম স্কাই নিউজে এই প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে৷ শুধু এই বুদ্ধমূর্তিই নয়, এর সঙ্গে রয়েছে আরও ১৪টি এরকম প্রাচীন মূর্তি৷

Advertisement

আরও পড়ুন: স্বাধীনতা দিবসে ‘সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ’ এর প্রচার

১৯৬১ সালে নালন্দার প্রত্নতত্ত্ব জাদুঘর থেকে এই মূর্তিটি চুরি হয়ে যায়৷ দ্বাদশ শতকের সময়কালে এই ব্রোঞ্জ মূর্তিটি তৈরি হয়েছিল বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের৷ ফলে এর ঐতিহাসিক মূল্য অপরিসীম৷

তবে এর গুরুত্ব সম্পর্কে ওয়াকিবহাল ছিলেন না নিলামের আয়োজকরা৷ এমনকি মূর্তিটির গুরুত্ব বুঝতে পারেননি ক্রেতা বা বিক্রেতা কেউই৷ মার্চ মাসে এই নিলামটির আয়োজন করা হয়৷

আরও পড়ুন: মান্দজুকিচের পর অবসর আরও এক বিশ্বকাপারের

দীর্ঘ আলোচনার পরে ভারতের হাতে মূর্তিটি তুলে দিতে রাজি হন নিলাম কর্তৃপক্ষ৷ তার আগে অবশ্য টেমস দিয়ে অনেক জলই গড়িয়েছে৷ মূর্তিটি সত্যি ভারতের সম্পত্তি কিনা তা জানতে তদন্তে নামে অ্যাসোসিয়েশান ফর রিসার্চ ইনটু ক্রাইমস এগেনইস্ট আর্ট৷ তদন্তের রায় যায় ভারতের পক্ষে৷ বুধবারই এই মূর্তি ভারতের হাই কমিশনার ওয়াই কে সিনহার হাতে তুলে দেন৷

আরও পড়ুন: ৫ কিমি লম্বা জাতীয় পতাকা বানিয়ে তাক লাগাল গুজরাট

এরআগে, লন্ডনের মাটি থেকে উদ্ধার হয় ষোলো বছর আগে গুজরাতেন পাটন এলাকা থেকে চুরি হয়ে যাওয়া ব্রহ্মা এবং তাঁর সঙ্গিনী ব্রহ্মানীর একটি মূর্তি। প্রত্নতাত্ত্বিকরা জানান, দুর্মূল্য এই মূর্তিটি দ্বাদশ শতাব্দীর। আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার ডিরেক্টর ডি এন দিমরি জানিয়েছেন, গত ২২ ডিসেম্বর ওই দু’টি মূর্তি লন্ডন থেকে ভারতে এসে পৌঁছয়৷ এরপর সেটি এএসআইয়ের পুরানা কুইলা সংগ্রহশালায় সযত্নে রাখা হয়। পাশাপাশি বহুমূল্য এই মূর্তিটির ফের সন্ধান পাওয়ার ঘটনাটি জানানো হয় এএসআইয়ের বরোদা শাখায়। সেখানেই এই বহুমূল্য মূর্তিটি সংরক্ষণ করা হবে।

আরও পড়ুন: মালদহে যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে পালিত স্বাধীনতা দিবস

কিভাবে উদ্ধার হল এই ব্রহ্মা এবং ব্রহ্মানির মূর্তিটি? সূত্রের খবর, লন্ডনের একটি সংবাদপত্রে এক ব্যক্তি এই মূর্তি দু’টি বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন। সেই বিজ্ঞাপনটি থেকে এক ভারতীয় সেই মূর্তিগুলিকে চিহ্নিত করে ভারতের হাই কমিশনে খবর দেন। এরপরই আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার উদ্যোগে এই মূর্তিটি উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন: আরও সংকটজনক বাজপেয়ী, হাসপাতালে মোদী

----
--