নির্বাচনের পর ভোট গণনার দিনেও সন্ত্রাসে অভিযুক্ত শাসকদল

ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন সন্ত্রাস ও হিংসার ঘটনায় রক্তাক্ত হয়েছিল রাজ্য৷ একই ছবি দেখা গিয়েছিল বুধবার পুনরায় নির্বাচনের দিনেও৷ নির্বাচনী হিংসায় এখনও পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন ২১ জন৷ বৃহস্পতিবার ভোট গণনার দিনেও সেই হিংসা, সন্ত্রাসের রেশ দেখা গেল রাজ্যের বহু জেলাতে৷

ভোট গণনার দিনে যাতে কোনও হিংসা, সন্ত্রাসের ঘটনা না ঘটে তার জন্য গণনা কেন্দ্রগুলিতে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ কিন্তু, তা সত্ত্বেও ভোট গণনা শুরুর আগে থেকেই জেলায় জেলায় সন্ত্রাসের ঘটনার ছবি উঠে এসেছে৷ আর বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অভিযোগ উঠছে শাসকদলের বিরুদ্ধে৷

বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টা থেকে শুরু হয় ভোট গণনা৷ কিন্তু, তার আগে থেকেই রাজ্যের বহু জেলায় বিরোধী প্রার্থী ও এজেন্টদের মারধর, আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে গণনা কেন্দ্রে দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ব, বিরোধীদের গণনা কেন্দ্রে ঢুকতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠে এসেছে৷

মুর্শিদাবাদ, কোচবিহার, উত্তর ২৪ পরগণা, নদিয়া, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, বর্ধমান-সহ বহু জেলাতেই বিরোধী দলের এজেন্ট ও প্রার্থীদের মারধর করে বের করে দেওয়া হয়েছে গণনা কেন্দ্র থেকে৷ পরিস্থিতি এতটাই উত্তপ্ত যে, উত্তর ২৪ পরগণার ভাঙড়ে নিজেদের এজেন্ট দেয়নি নির্দল প্রার্থীরা৷

তাদের দাবি, গণনা কেন্দ্রগুলিতে নিরাপত্তার অভাব রয়েছে৷ বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উত্তেজনা বাড়ছে গণনা কেন্দ্রগুলিতে৷ আর সব ঘটনাতেই অভিযোগের আঙুল উঠছে তৃণমূল কংগ্রেসের দিকে৷