হোয়াটসঅ্যাপের পর এবার ফেসবুকে মোমোর আতঙ্ক

স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: মোমো গেমের আতঙ্কে এখনও ভুগছে রাজ্যবাসী৷ বিভিন্ন জেলার একাধিক ছাত্রছাত্রী, চাকরিজীবী থেকে ব্যবসায়ীরা ভুক্তোভুগী৷ এতদিন পর্যন্ত এই গেম সীমাবদ্ধ ছিল শুধু হোয়াটসঅ্যাপে৷ এখন ফেসবুকেও হানা দিয়েছে এই মোমো গেম৷

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার তুহিন শুভ্র আগুয়ানের দাবি, ৯ সেপ্টেম্বর রাত প্রায় ৮.২৮ মিনিট নাগাদ মোমো নামে একটি অ্যাকাউন্ট থেকে ফেসবুকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট আসে৷ তুহিন মধ‍্যহিংলী হাইস্কুলের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: এবার পুজোয় কুঁড়ে বাঙালি কি ‘জগা’র দোকানে লাইন দেবে?

ঘটনার পরদিন প্রথমে ওই ছাত্র কলকাতা সিআইডি দফতরে ই-মেল মারফত একটি অভিযোগ দায়ের করে৷ তারপরের দিন অর্থাৎ মঙ্গলবার ওই ছাত্রের বাবা সুদীপ্ত আগুয়ান মহিষাদল থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ জানান। পুলিশ ওই ছাত্রের পরিবারকে তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন।

তুহিন জানিয়েছে, ফেসবুকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট আসার আগেও তার কাছে মোমো গেম খেলার প্রস্তাব এসেছিল৷ প্রায় ২০ দিন আগে একটি অচেনা নম্বর থেকে হোয়াটসঅ্যাপে তার কাছে মেসেজ আসে। যার প্রোফাইল ছবিতে দেওয়া ছিল মোমোর সেই বিকৃত মুখ। এরপর ওই ছাত্র আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে মহিষাদল থানায় অভিযোগ জানায়।

আরও পড়ুন: ‘হিন্দুদের পিছন থেকে ছুরি মারছে বিজেপি’

পুলিশ ও স্থানীয় জানা গিয়েছে, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মধ্যহিংলী হাইস্কুলের দ্বাদশ শ্রেণীর ওই ছাত্র তুহিন শুভ্র আগুয়ান পড়াশোনার পাশাপাশি একটি দৈনিক সংবাদপত্র ও বৈদ্যুতিন মাধ্যমে সাংবাদিকতা করে৷ ফলে তার কাছে স্মার্টফোন ব্যবহার করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই ধরনের মারণ গেমের মেসেজ কোনওদিনই আসেনি তার ফোনে। তবে এই প্রথমবার বারবার মারণ গেম মোমোর মেসেজ আসায় এখন আতঙ্কগ্রস্থ ওই ছাত্র।

তুহিন বলে, ‘‘কয়েকদিন আগে আমার হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে মোমোর মেসেজ এসেছিল। এরপর আমি মহিষাদল থানায় অভিযোগ জানাই। এর ঠিক একমাস হতে না হতেই ফের আমার ফেসবুকে মোমো নামে একটি অ্যাকাউন্ট থেকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট আসে। আমি দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র৷ সামনে আমার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা রয়েছে৷ তাই আমি এখন চরম আতঙ্কে রয়েছি।’’

আরও পড়ুন: সাপ্লিমেন্টারির দাবিতে অবস্থান বিক্ষোভ ও অনশনে অনড় পড়ুয়ারা

ওই ছাত্রের মা কল্পনা আগুয়ান বলেন, ‘‘বারবার কেন আমার ছেলের ফোনে মোমো গেমের মেসেজ আসছে? এই বিষয়ে আমরা খুবই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি। আমি এর বিরুদ্ধে প্রশাসনের কাছে তদন্তের দাবি জানাচ্ছি।’’

Advertisement
---