উত্তরপ্রদেশের পর গুজরাতেও মুসলিমরা মোদীর পাশে

মানব গুহ, কলকাতা: উত্তরপ্রদেশের পর গুজরাত৷ সবাইকে চমকে দিয়ে মুসলিমদের ভোট আবার বিজেপির ঝুলিতেই৷ ভোটের ফল বিশ্লেষণ বলছে, গুজরাতে মুসলিম অধুষ্যিত এলাকার ১২ টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ৯ টিই জিতেছে বিজেপি৷ বাকি ৩ টি জিতেছে কংগ্রেস৷ এর আগে, উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে মুসলিম অধ্যুষ্যিত এলাকার ৮২ টি আসনের মধ্যে ৬২ টি জিতে নিয়েছিল বিজেপি৷ এতটা পরিবর্তন কী করে হল? প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলেও৷

সেই গুজরাত৷ মোদীর গুজরাত৷ গোধরা পরবর্তী গুজরাত৷ যেখান থেকে ভারতের মুসলিম সম্প্রদায়ের বিজেপি বিরোধিতা শুরু৷ উত্তরপ্রদেশের বাবরি মসজিদ ইস্যুকে ধরেও মনে করা হয়, গুজরাত থেকেই মুসলিম সম্প্রদায়ের বিজেপি বিরোধিতা শুরু হয়েছে৷ সেই গুজরাতে ১২ টি এমন আসন রয়েছে যেখানে মুসলিম ভোটারের সংখ্যা বেশি৷ মনে করা হয়েছিল, এই ১২ টি আসনের অধিকাংশ পাবে কংগ্রেস৷

আরও পড়ুন: গুজরাতবাসীকে সব ভুলে আবার এক হওয়ার বার্তা মোদীর

- Advertisement -

কিন্তু কার্যকালে হল উল্টোটাই৷ ১২ টি আসনের মধ্যে ৯ টি জিতল বিজেপিই৷ সাফল্যের হার ৭৫ শতাংশ৷ তাহলে কি ‘তিন তালাক’ আবার কামাল করল? নাকি মোদীর সেই অমোঘ বাণী, ‘সবকা সাথ, সবকা বিকাশ’? কারণ যাই হোক, গুজরাতের মুসলিমদের সমর্থন এখন মোদীর বিজেপির দিকেই৷

ঠিক যেমন এবছরেরই ফেব্রুয়ারি-মার্চে হওয়া উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচন চমকে দিয়েছিল সবাইকেই৷ বাররি কাণ্ডের পরবর্তী উত্তরপ্রদেশ ভোটে মুসলিম ভোটের অধিকাংশই যে বিজেপির পকেটে যাবে ভাবতে পারেননি বিজেপির নেতারাও৷ মুসলিম অধ্যুষ্যিত এলাকার ৮২ টি আসনের মধ্যে ৬২ টি পেয়েছিল বিজেপি৷ ফলাফলে চমকে গিয়েছিলেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরাও৷ হিন্দু ভোটপ্রার্থী দিয়েও এই আসনগুলি জেতা কী করে সম্ভব হল? উঠেছিল প্রশ্ন৷

আরও পড়ুন: বিজয় নাকি স্মৃতি! কে হতে চলেছে গুজরাতের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী?

বিরোধী দলের নেতারা ইভিএম কারচুপির অভিযোগ এনেছিলেন৷ কিন্তু, গুজরাতের ভোট প্রমাণ করে দিল যে, মুসলিম ভোট মানেই বিজেপির বিরুদ্ধে, এই ধারণা পাল্টাবার সময় এসেছে৷ মোদীর তিন তালাক বিরোধী লড়াই মুসলিম মহিলা ও নতুন প্রজন্মের ছেলে-মেয়েদের সমর্থন পেয়েছে, তা উত্তরপ্রদেশ ও গুজরাত ভোটের ফলাফলের বিশ্লেষণে পরিষ্কার৷ এটাও স্পষ্ট, এতবছর ভারতের শাসন ক্ষমতায় থাকলেও মুসলিমদের মন জয় করতে ব্যর্থ কংগ্রেস৷

যদিও ২০১২ সালের তুলনায় গুজরাতে এবার ২০ টি আসন কমেছে বিজেপির৷ ভোটের রিপোর্ট পর্যালোচনা বলছে, গ্রামাঞ্চলে ভোট কমেছে বিজেপির৷ কিন্তু ২০ টি আসন কমলেও, মুসলিম ভোট ব্যাংকের সমর্থন পাওয়ায় আগামী লোকসভা নির্বাচনে গেরুয়া শিবির যে অনেকটাই নিশ্চিন্তে থাকবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না৷

আরও পড়ুন: হেরেছি, কিন্তু জিততেও পারতাম : রাহুল

উত্তরপ্রদেশ ও গুজরাত৷ এই দু’টি রাজ্যই দায়ী ছিল মুসলিমদের বিজেপির বিরুদ্ধে চলে যাওয়াতে৷ এখন, সেই দুটি রাজ্যেই মুসলিম ভোট ব্যাংক বিজেপির দখলে৷ উত্তরপ্রদেশ ও গুজরাতের ফল যদি ধরে রাখতে পারে বিজেপি তাহলে ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে মুসলিম ভোটব্যাংক নিয়ে আর চিন্তাই করতে হবে না বিজেপিকে৷

সংখ্যালঘু শিবিরের এই বিশাল পরিবর্তন যে পদ্ম শিবিরে অনেকটাই নিশ্চয়তা আনবে সেটা পরিষ্কার৷ উগ্র হিন্দুত্বের রাজনীতি করেও মুসলিম ভোট ব্যাংক পকেটে পোড়ার ফর্মুলা বিজেপি কী করে আয়ত্ত করল, প্রশ্ন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ মহলেও৷

আরও পড়ুন: অনাবাসী ভোটারদের প্রক্সি ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা করছে কেন্দ্র

Advertisement
---