ছাত্র মৃত্যু ঘিরে বিক্ষোভ বাঁকুড়ার খ্রীস্টান কলেজে

স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: এক কলেজ ছাত্রের আত্মহত্যার ঘটনায় উত্তাল হয়ে উঠল বাঁকুড়া খ্রীস্টান কলেজ। শনিবার অধ্যক্ষকে ঘিরে কালো ব্যাজ পরে পড়ুয়ারা বিক্ষোভ দেখায়৷ এক অধ্যাপকের ‘হুমকি’ ও ‘অপমান’ সহ্য করতে না পেরেই বিষ্ণুপুর শহরের ঝাপট মোড়ের দিব্যেন্দু চক্রবর্তী (১৯) নামে ওই ছাত্র আত্মহত্যা করেছে৷ এমনটাই অভিযোগ বাকি ছাত্র-ছাত্রীদের। উল্লেখ্য, মৃত দিব্যেন্দু চক্রবর্তী খ্রীস্টান কলেজের ইংরেজী অনার্সের প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিল৷

আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীদের তরফে খবর, কলেজে দেওয়াল পত্রিকায় আরও অনেকের সঙ্গে ওই ছাত্রও একটি লেখা জমা দিয়েছিল৷ তবে পত্রিকা কমিটি সেই লেখা বাতিল করে দেয়। এই নিয়ে কলেজের কয়েক জন দাদাদিদির সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে ওই ছাত্র। অভিযোগ, পরে তথাকথিত ওই দাদাদিদিদের অভিযোগের ভিত্তিতে কলেজের অধ্যাপক অয়নবাবু তাকে ম্যাসেজ করে হুমকি দেয়। এরপর অপমান সহ্য করতে না পেরে বৃহস্পতিবার রাতে বাড়িতেই সে আত্মহত্যা করে বলে পরিবারের অভিযোগ।

এই ঘটনায় কলেজের ছাত্রছাত্রীরা অভিযুক্ত অধ্যাপকের শাস্তির দাবিতে সরব হয়। আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীদের পক্ষে সুপ্রতিম দাস বলেন, ‘‘মৃত ছাত্রের পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা না জানিয়ে অভিযুক্ত অধ্যাপকের বিরুদ্ধে যাতে অভিযোগ না করা হয়, সেই ব্যাপারে তার বাবাকে হুমকি ফোন করেছেন কলেজের এক অধ্যাপক।’’ পাশাপাশি অভিযুক্ত অধ্যাপকের শাস্তির দাবিতে তাদের আন্দোলন চলবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, অভিযুক্ত অধ্যাপককে কলেজে পাওয়া যায়নি। তাই তার বক্তব্য মেলেনি। তবে খ্রীস্টান কলেজের অধ্যক্ষ ফটিক বরণ মণ্ডল এই ঘটনাকে ‘অনভিপ্রেত-অবাঞ্ছিত’ আখ্যা দিয়ে বলেন, ‘‘যে কারণেই ওই ঘটনা ঘটে থাকুক আমরা আমাদের এক সদস্যকে হারালাম।’’ এই শোক প্রকাশের ভাষা তাদের নেই জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘‘এই বিষয়ে পরিবার বা অন্য কোনও পক্ষের তরফে কেউ কোনও অভিযোগ করেননি। এই ঘটনায় কাউকে বাঁচানোর চেষ্টা করা হচ্ছে না৷’’