হায়দরাবাদ: CATCHES WIN MATCHES. ক্রিকেটে বহুপ্রচলিত পুরনো প্রবাদ৷ আরও একবার এই প্রবাদ অক্ষরে অক্ষরে মিলিয়ে দিলেন হায়দরাবাদ অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন৷ আর ক্যাচ ফেলে খলনায়ক বনে গেলেন রয়্যালসের অজিঙ্ক রাহানে৷

উপ্পলে আইপিএলের চতুর্থ ম্যাচে দুই প্রতিপক্ষের দুই নতুন অধিনায়কের কাছে দলকে প্রথম ম্যাচে জয় এনে দেওয়ার বাড়তি একটা চাপ ছিল৷ একদিকে ওয়ার্নারের জুতোয় পা গলিয়ে সানরাইজার্সকে নেতৃত্ব দেন উইলিয়ামসন আর অন্য দিকে স্মিথের সিংহাসনে বসে দু’বছর পর প্রত্যাবর্তন করা দলকে পরিচালনা করছিলেন অজিঙ্ক রাহানে৷

ইন্দো-কিউয়ি অধিনায়কত্বের মস্তিষ্কের ব্যাটেলে শেষটায় জিতলেন উইলিয়ামসন৷ তবে তাঁর জয়ের চেয়েও অজিঙ্ক নিজে যেন গুরুত্বপূর্ণ ক্যাচ ফেলে বিপক্ষ ফ্যাঞ্চাজিকে জয় উপহার দিয়ে এলেন৷

১২৬ রান তাড়া করতে প্রথম ওভারেই মারকুটে ধাওয়ানকে ডাগআউটে ফেরেনোর সুযোগ আসে রাজস্থানের৷ ধবল কুলকার্নির প্রথম ওভারের শেষ বলে স্লিপে লোপ্পা ক্যাচ দিয়ে বসেন সানরাইজার্সের মারকুটে ওপেনার শিখর ধাওয়ান৷ তখন তিনি ০ রানে ব্যাটিং করছিলেন৷

এরপর ঋদ্ধিমানকে দ্রুত ডাগআউটে ফেরালেও ধাওয়ানকে আটকাতে পারেনি রয়্যালসের বোলিং আক্রমণ৷ রান তাড়া করতে নেমে ১৩টি চার ও একটি ছয় মেরে ৫৭ বলে৭৭ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলে ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন ধাওয়ান৷ ক্যাচ ফেলে হায়দরাবাদের ইনিংসে প্রথম ওভারের ম্যাচ হাতছাড়া করেন রাহানে৷

রাহুল দ্রাবিড়ের পর ভারতীয় ক্রিকেটে স্লিপ পজিসনে রাহানে ধারাবাহিক ভাবে সফলই শুধু নয় কোহলির প্রথম পছন্দও বটে৷ সেই রাহানে অবশ্য রাজস্থানের জার্সি গায়ে চাপিয়ে প্রথম ম্যাচে নিজের ফেভারিট পজিশনে দাঁড়িয়ে দাগ কাটতে পারলেন না৷৷

অন্যদিকে অপর অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন প্রথম ম্যাচে দুরন্ত ফিল্ডিং করে বিপক্ষকে ১২৫ রানের গণ্ডিতে বেধে রাখেন৷ রান তাড়া করতে নেমে ব্যাট হাতে অপরাজিত ৩৬ রানের ইনিংস খেলার পাশাপাশি এদিন রয়্যালসদের ব্যটিংয়ের প্রথম ওভারের শেষ বলে দুরন্ত রান আউটে ডার্সি শর্টকে ডাগআউটে ফেরান উইলিয়ামসন৷ এরপর স্ট্যানলাকের বলে দুরন্ত ক্যাচে মারকাটারি ব্যাটসম্যান বেন স্টোকসে পাঁচ রানে আউট করে ডাগআউটের রাস্তা দেখান৷

একই ম্যাচে ক্যাচ ফেলে তাই খলনায়ক রাহানে, উলটো পথে হেঁটে নায়ক উইলিয়ামসন৷ দিনের শেষে তাই ক্যাচলাইন একটাই, ক্যাচ ফসকালে ম্যাচ ফসকাতেই হবে৷ আইপিএলে নো সেকেন্ড চান্স!

----
--