মোদীর আগেই দেশের নিরাপত্তায় ইজরায়েলে জেমস বন্ড

নয়াদিল্লিঃ  মোদীর নজরে ইজরায়েল।  চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ে ইজরায়েল সফরে যেতে পারেন মোদী, এমনটাই খবর।  কিন্তু প্রধানমন্ত্রী মোদীর সফরের আগেই জেরুজালেম পৌঁছে গেলেন ভারতের জেমস বন্ড।  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সফরের আগে ইজরায়েলে শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করলেন অজিত দোভাল।  শুধু তাই নয়, ইজরায়েলে পৌঁছেই জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা দোভাল বৈঠক করেন ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে।  সামরিক ইস্যু সহ দুই দেশের মধ্যে হতে চলা একাধিক চুক্তির বিষয় নিয়েই এই বৈঠকে আলোচনা হয় বলে জানা গিয়েছে।

পড়ুন আরও  সমর কৌশলে নওয়াজের চিন্তা বাড়িয়ে ইজরায়েল সফরে মোদী

আগামী জুন-জুলাইয়ে বহু প্রতীক্ষিত ইজরায়েল সফরে যেতে পারেন প্রধানমন্ত্রী।  ইজরায়েল এবং ভারতের কূটনৈতিক সম্পর্কের ২৫ বছর উদযাপন করছে।  সেই প্রেক্ষাপটে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যাচ্ছেন ইজরায়েল সফরে।  ফলে এই সফর যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

- Advertisement -

পড়ুন আর- ১৭০০০ কোটির চুক্তি! লং রেঞ্জের মিসাইল তৈরি করবে ভারত ও ইজরায়েল

কূটনৈতিক মহলে বলা হয়ে থাকে, মোদী ও ইজরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেটানইয়াহুর ব্যক্তিগত সম্পর্কের রসায়ন খুব ভাল। তাকে নতুন মাত্রায় নিয়ে যেতে চান মোদী। ১৯৯২ এর জানুয়ারি ভারত-ইজরায়েল কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের পর থেকেই তা দ্রুত এগোচ্ছে। যদিও ভারত শীর্ষ স্তরের কাউকে সে দেশ সফরে পাঠানোর ব্যাপারে খানিকটা সঙ্কোচ দেখিয়েছে। কিন্তু কেন্দ্রে ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর দ্বিধা ঝেড়ে ফেলে নয়াদিল্লি। ২০১৫-র অক্টোবরে ইজরায়েল সফরে যান রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। সেই ছিল কোনও ভারতীয় রাষ্ট্রপ্রধানের প্রথম ইজরায়েল সফর। পাল্টা প্রণববাবুর আমন্ত্রণে গত বছর ভারত সফরে আসেন ইজরায়েলি প্রেসিডেন্ট রুয়েভেন রিভলিন। তার আগে ২০০৩ সালে নয়াদিল্লি এসেছিলেন ইজরায়েলের তত্কালীন প্রধানমন্ত্রী অ্যারিয়েল শ্যারন। এবার বহু প্রতীক্ষিত ইজরায়েল সফরে যাচ্ছেন মোদী।

Advertisement
---