লখনউ: লোকসভা নির্বাচন আসন্ন৷ তার আগে রাজনৈতিক মত পার্থক্য দূরে সরিয়ে উত্তরপ্রদেশে এখন অন্যরকম সমীকরণ৷ মোদী-অমিত শাহ জুটির ঘুম ওড়াতে হাত মেলালেন অখিলেশ যাদব এবং মায়াবতী৷ ১২ জানুয়ারি, শনিবার সমাজবাদী পার্টি এবং বহুজন সমাজবাদী পার্টি জোটের কথা ঘোষণা করলেও তাতে ব্রাত্য থেকে কংগ্রেস৷ লোকসভা নির্বাচনে মোট ৮০টি আসনের মধ্যে দুই দল ৩৮টি করে আসনে লড়বে৷

ইতিমধ্যেই সমাজবাদী পার্টি প্রধান অখিলেশ যাদব এই জোট সম্পর্কে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে মায়াবতীর প্রধানমন্ত্রী হওয়া প্রসঙ্গে জানান, উত্তরপ্রদেশ থেকে ফের একজন প্রধানমন্ত্রী হতে পারবে সেটাই সবথেকে খুশির বিষয়৷ রাজ্য-রাজনীতিতে পিসি-ভাইপো হিসেবে পরিচিত এই জুটি র মধ্যে অখিলেশ জানান, মায়াবতীর কোনও অপমান হলে তা তারও অপমান৷

পড়ুন: মায়াবতী-অখিলেশ জোটকে স্বাগত জানালেন মমতা

এদিকে মায়াবতী জানান, কংগ্রেসকে বোফর্স হারিয়েছিল, বিজেপিকে রাফায়েল হারাবে৷ কংগ্রেসের সময় দেসে এমারজেন্সি লাগু করা হয়েছিল, বিজেপির সময়ে দেশে অঘোষিত এমারজেন্সি চলছে৷ কংগ্রেসের সঙ্গে অতীতের অভিজ্ঞতা সুখের নয়, ভোটেও তার প্রভাব পড়েছিল৷ কংগ্রেসের লাভ হলেও বহুজন সমাজবাদী পার্টির কোনও লাভ হয়নি৷ গতবারের বিধানসভা নির্বাচনে দলের পরাজয় কংগ্রেসের সঙ্গে সংযুক্তিকরমের ফলেই হয়েছিল বলে সাফ জানান মায়াবতী৷

প্রসঙ্গত, ১৯৯৩ সালে একই রকম জোট গঠন করা হয়েছিল। সেই পথে হেঁটেই ফের যুযুধান দুই পক্ষ হাত মিলিয়েছে। সাম্প্রতিক কয়েকটি নির্বাচনে এই রাজ্যে বিএসপি-এসপি জোট বিরাট সাফল্য পায়। তারপর থেকেই মহাজোট গড়া নিয়ে চলছিল আলোচনা।

পড়ুন: মুখে বিরোধিতা করেও আমেঠি-রায়বেরেলি কংগ্রেস ছাড়লেন মায়া

এই জোটে রাজ্যের অন্যতম কৃষক নেতা তথা রাজনীতিক, প্রাক্তন মন্ত্রী অজিত সিং-এর দল আরএলডি অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে বলেই খবর। উত্তরপ্রদেশের কৃষি এলাকায় আরএলডি খুবই শক্তিশালী। সেই জাঠ ভোট নিজেদের দিকেই টেনে আনছে বুয়া-ভাতিজার জোট।

--
----
--