মস্কো: মাদকসেবনে নিষেধাজ্ঞার সমর্থনে বিহার যেন নজির গড়ে তুলেছিল৷ প্রায় ৩কোটিরও বেশি মানুষের একতায় তা এই পদক্ষেপে সাফল্য আসে৷ শুধু ভারতেই নয় বিদেশের মাটিতেও এবার এমন পদক্ষেপে ধীরে ধীরে সাড়া দিচ্ছে অনেকেই৷

২০০৯-এ রাশিয়ায় প্রতি ব্যক্তির মদ্যপান প্রায় ১৫লিটার ছিল, যা এখন ১০লিটার হয়েছে৷ শুধু মদ্যপানে রাশ টানা নয়, তার পাশাপাশি এই নিয়ে বিজ্ঞাপন এবং এর মূল্যের ওপরও রাশ টানা হয়েছে৷ এছাড়া মদ্যপানের নূন্যতম আয়ু নির্ধারন এবং ফুটপাতে মাদক বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা এই পদক্ষেপকে যে সফল হতে সাহায্য করবে এমনটাই মনে করা হচ্ছে৷ যদিও WHO-এর মতে রাশিয়ার মদ্যপানের হার এখনও দুশ্চিন্তার স্তরেই রয়েছে৷
জানা গিয়েছে, মদ্যপানের ফলে হওয়া বিভিন্ন ধরনের শারীরিক রোগ, অসুস্থতা প্রায় ৩০শতাংশ কমে গিয়েছে৷ গত ডিসেম্বরে, রাশিয়ায় বিশমদ পান করার ফলে ৫০-এর বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছিল৷ অবস্থা ক্রমেই নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ার আশঙ্কায়, সরকার এখানে জরুরী অবস্থা ঘোষণা করে৷
WHO-এর একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, মদ্যসেবনে ইওরোপের বিভিন্ন দেশের মধ্যে রাশিয়ার স্থান চতুর্থ৷ অন্যান্য অ্যালকোহলিক পানীয় সেবনেও রাশিয়া অনেকের থেকে এগিয়ে বলে জানা গিয়েছে৷

#According to the WHO 2011, annual per capita consumption in Russia was lowered about 10.76 litres, which before was 15 litre. According to Who, fourth highest volume in Europe.

--
----
--