খাস চাঁদের মাটিতেই ছিল এলিয়েন, বলছেন বিজ্ঞানীরা

ওয়াশিংটন: খুব একটা দূরে নয়, ভিনগ্রহীদের বাস ছিল পৃথিবীর একেবারে কান ঘেঁষেই। বিজ্ঞানীদের নতুন গবেষণা বলছে, পৃথিবীর উপগ্রহ অর্থাৎ চাঁদেই ছিল এলিয়েনদের বাস। হতে পারে, আজ চাঁদকে যেমনটা দেখছেন, তেমনটা হয়ত ছিল না। বাসের যোগ্য ছিল চাঁদ।

গবেষকেরা বলছেন, একটি উল্কা বিস্ফারিত হওয়ার পর এসব মহাজাগতিক প্রাণি আমাদের নিকটতম ও নিজস্ব উপগ্রহ চাঁদে বসবাস শুরু করেছিল। যখন এই ঘটনা ঘটেছিল তখন চাঁদ ছিল বসবাসের যোগ্য। মনে করা হচ্ছে, এখনকার মতো অতটা রুক্ষ্ম ছিল না চাঁদের মাটি। সেখানে জীবন ধারণের মতো উপযুক্ত পরিবেশ ছিল।

গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, এসব অন্তত ৪০০ কোটি বছর আগের কথা। একটি আগ্নেয়গিরির উদগীরনের সময় সেখানে প্রচুর পরিমাণ উত্তপ্ত গ্যাস ছড়িয়ে পড়ে। তার সঙ্গে ছিল বিপুল পরিমাণ জলীয় বাষ্প। সেই গ্যাস ঠাণ্ডা হয়ে তৈরি হয় জল। ওয়াশিংটন স্টেট ইউনিভার্সিটির জ্যোতির্বিদ ডিরক শুলজ-মাকুচ বলেন, যদি ওই বিপুল পরিমাণ জল ও ঠান্ডা হয়ে আসা আবহাওয়া শুরুর দিকে চাঁদে দীর্ঘ সময় স্থিতিশীল থেকে থাকে তাহলে চাঁদের ভূ-পৃষ্ট বসবাসের উপযোগী ছিল, সেটা ধরে নেওয়া যেতেই পারে।

- Advertisement -

পৃথিবীতে প্রাণ এসেছিল ৩.৫ থেকে ৩.৮ বিলিয়ন বছর আগে। ক্যানোব্যাকটেরিয়ার হাত ধরেই এসেছিল প্রাণ। ধরে নেওয়া হচ্ছে চাঁদের ভু-পৃষ্ঠ শুকনো হওয়ার আগে সেখানকার জলে মাইক্রোব জাতীয় প্রাণের উপস্থিতি ছিল।

Advertisement ---
---
-----