ভাঙছে স্পেন ? গণভোট রুখতে মরিয়া সরকার

মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা: স্পেনের গুরুত্বপূর্ণ কাতালোনিয়ার মানুষ চান আলাদা দেশ৷ সেই লক্ষ্যে চলছে সেখানকার বাসিন্দাদের গণভোট৷ এই নির্বাচন সরকার সমর্থন করেনি৷ ভোট ঠেকাতে পাঠানো হয়েছে বিশাল রক্ষী বাহিনী৷ সবমিলিয়ে স্পেন উত্তেজনায় থরথর৷

মানচিত্রে পরিবর্ত হবে ? আলাদা রাষ্ট্র হবে কাতালোনিয়া প্রদেশ ? বিখ্যাত ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনার মালিকানা হারাতে চলেছে স্পেন ? এই প্রশ্ন আগেই উঠে গিয়েছে৷ তবে গণভোটে অনড় সরকার৷ স্পেন সরকার বলছে, এই গণভোট অবৈধ। শুধু তাই নয়, আদালত থেকেও এই ভোটের আয়োজন বন্ধ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিবিসি জানাচ্ছে, সরকারের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করেই কাতালোনিয়ার স্থানীয় সময় সকাল থেকে গণভোটের উন্মাদনা তুঙ্গে৷ একে বিচ্ছিন্নতাবাদী তকমা দিয়েছে সরকার৷ অন্যদিকে স্থানীয় নেতৃত্ব বলছেন, ব্যালট বাক্স তৈরি এবং প্রচুর ভোটার সমাগম হবে বলে তারা আশা করছেন।

- Advertisement -

গণভোটের ব্যালট পেপারে একটি প্রশ্ন থাকবে: “আপনি কি চান যে কাতালোনিয়া একটি স্বাধীন রাষ্ট্রে পরিণত হোক?” উত্তর দিতে হবে হ্যাঁ অথবা না। বিবিসি জানাচ্ছে, কাতালোনিয়ার জনসংখ্যা ৭৫ লক্ষ। এই জনসংখ্যা স্পেনের মোট জনসংখ্যার ১৬ শতাংশ৷ স্পেনের উত্তর-পূর্বের এই প্রদেশ কার্যত স্প্যানিশ সংস্কৃতির কেন্দ্র বলেই পরিচিত৷ তাদের আছে নিজস্ব ভাষা৷

কাতালোনিয়া প্রদেশকে স্বাধীনতা দিতে হবে৷ এই দাবি তুলে গণভোটে গিয়েছে কাতলান প্রদেশ সরকার৷ এপি, এফপি, সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্ট, এই ভোটে অংশ নিতে শুক্রবার রাত থেকেই হাজার হাজার কাতলানবাসী ভোটের লাইনে দাঁড়িয়ে পড়েছেন৷

মাদ্রিদ থেকে পাঠানো রিপোর্টে বলা হয়েছে৷ গণভোট রুখতে কঠোর অবস্থান নিয়েছে সরকার৷ সব ভোটকেন্দ্র বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি করা হয়েছে৷ অন্যদিকে ভোটকেন্দ্র রক্ষায় মরিয়া কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার পক্ষে সমর্থনকারীরা৷ তারা পাল্টা অবস্থান নিয়েছেন৷

Advertisement ---
---
-----