ডাইনি অপবাদে ঘরছাড়ারা দ্বারস্থ জেলাশাসকের

শংকর দাস, বালুরঘাট: ফের কুসংস্কারের শিকার ২০ জন৷ ডাইনি অপবাদে চারটি আদিবাসি পরিবারের ২০ জনকে ঘরছাড়া করল গ্রামের মাতব্বর৷প্রায় একমাস ধরে গ্রামছাড়া রয়েছে তারা। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিন দিনাজপুর জেলার তপন থানার রামচন্দ্রপুরে৷ ডাইনি বলে ঘোষিত অসহায় মানুষজন ও তাঁদের পরিবারের লোকেরা থানায় অভিযোগ জানানো সত্বেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না৷ অবশেষে পরিবারকে সঙ্গে নিয়ে ঘরছাড়ারা বালুরঘাট জেলাপ্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছেন। নিরাপত্তা সহ নিজেদের গ্রামে ফিরতে চেয়ে জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত আবেদনও করেছেন তাঁরা।

তপন থানার রামচন্দ্রপুর এলাকার অন্তর্গত গ্রাম বড়পুকুর চকভগীরথ ও পোড়াগাছি। এই গ্রাম তিনটির বাসিন্দা কবিরাজ মুর্মু বাংরু মার্ডি বিমল মার্ডি লক্ষ্মী মার্ডি। এলাকার পাঁচ মাতবর চারটি পরিবারের মোট সাতজনকে ডাইনি বলে ঘোষণা করেন। মাতব্বরদের অভিযোগ, ডাইনি ৭জনের কারণে গ্রাম চারটি অশুভশক্তিতে ছেয়ে গিয়েছে ও কলুষিত হচ্ছে। এব্যাপারে রীতিমতো সালিশি সভা ডেকে তাঁরা ঘোষণা করে যে প্রত্যেককে ১৬হাজার টাকা করে জরিমানা জমা দিতে হবে। সেই সঙ্গে সাতজন ও তাঁদের পরিবারের লোকেদের সকলকে গ্রাম পরিষ্কার করে দিতে হবে। অন্যথায় তাঁদের গ্রাম ছেড়ে চলে যেতে হবে। এর পরেই পরিবারকে সঙ্গে নিয়ে সাত জন গত প্রায় একমাস ধরে গ্রাম থেকে পালিয়ে তাদের আত্মীয়দের বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে আছেন।

বুধবার দুপুরে জেলা শাসকের কাছে অসহায় মহিলা লক্ষ্মী জানিয়েছেন, গত মে মাসের প্রথম সপ্তাহে এক রাত্রে এলাকার কয়েক জন মাতব্বর তাঁদের ডাইনি অপবাদ দিয়ে বাড়িতে সশস্ত্র অবস্থায় হামলা চালায়। বাড়ির ভেতর থেকে ধান চাল লুঠ করে নিয়ে যায় তারা। বাধা দিতে গেলে তাদের প্রানে মেরে ফেলার হুমকিও দেয় তারা। কোন রকমে প্রান বাঁচাতে অন্ধকারে পালিয়ে জঙ্গলে গিয়ে আশ্রয় নেন। আদিবাসী ওই মহিলা আরও অভিযোগ, যে দুই বছর আগেও একই অপবাদ দিয়ে তাদের উপর হামলা চালানো হয়েছিল।
তবে মাতব্বরদের শিকার তিনি শুধু একা নন। এরকম আরও তিনটি পরিবারের ক্ষেত্রেও একই অপবাদ দিয়ে তাদের গ্রাম ছাড়া হতে বাধ্য করেছে ওই মাতব্বররা।

- Advertisement -

এব্যাপারে জেলাশাসক সঞ্জয় বসু জানিয়েছেন, ডাইনি সন্দেহে তপনের কয়েকটি পরিবারকে এলাকা থেকে বিতারিত করেছে স্থানীয় কিছু ব্যাক্তি এমন অভিযোগ তিনি পেয়েছেন। তাঁদের বাড়িতে ফিরিয়ে দেবার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। পাশাপাশি জেলা জুড়ে “মিশন নির্মলবাংলা” কর্মসূচির সাথে “ডাইনি” সন্দেহ যে কুসংস্কার ছাড়া কিছুই নয় সেব্যাপারেও প্রচার করা হবে বলে জেলাশাসক জানিয়েছেন।
তপন এলাকারই বাসিন্দা উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী বাঁচ্চু হাসদা বলেন, বিষয়টি শুনে খুবই খারাপ লাগছে। পুলিশ যাতে দ্রুত অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা গ্রহন করে। সেই বিষয়েও পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে তিনি কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন।

Advertisement ---
---
-----