স্টাফ রিপোর্টার,বাগদা: জলাভূমি বোজানোর অবৈধ কাজে জরিয়ে গেল পঞ্চায়েত প্রধানের নাম৷

ঘটনাটি বনগাঁ মহাকুমার বাগদা থানার হেলেঞ্চা হাটবাজার এলাকার৷এলাকার অর্পন বালা পেশায় বারাসাত এলাকার কোনও এক পঞ্চায়েতের নির্মাণ সহায়ক কর্মী৷ তাঁর বাড়িতে শনিবার সন্ধ্যা নাগাদ পুকুর ভরাট হচ্ছে বলে বাগদা থানার কাছে গোপন সূত্রে খবর আসে৷খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ৷পুকুর ভরাট বন্ধ করে দেয়৷কিন্তু অভিযোগ পুলিশের কাজে হস্তক্ষেপ করেন হেলেঞ্চা পঞ্চায়েতের প্রধান অনিমেষ বাইন৷

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী চাইছেন ‘জল ধর জল ভরো’ প্রকল্পে পুকুর ভরাট বন্ধ হোক। বিগত প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ দিয়েছেন কোথাও পুকুর ভরাট করা চলবে না৷ এরকম খবর পেলেই প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷সেই মতো পুলিশ ব্যবস্হা নেয় এবং বাড়ির মালিকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়৷কিন্তু সেই মুহুর্তে হেলেঞ্চা পঞ্চায়েতের প্রধান অনিমেষ বাইন পুলিশের কাজে বাধা দেন বলে অভিযোগ৷পুলিশের পক্ষ থেকে প্রধানের বিরুদ্ধে স্বতপ্রনোদিত মামলা রুজু করা হয়েছে৷

এই ঘটনায় প্রধানের সঙ্গে দেখা করতে গেলে তাঁর দেখা পাওয়া যায়নি৷ঘটনায় পর এলাকার লোকের প্রশ্নের মুখে পরেছেন প্রধান অনিমেষ বাইন৷ পরে তাঁর দেখা পাওয়া গেলে তিনি যানান “আমার পঞ্চায়েত এলাকা আমিতো সেখানো যাবোই”৷ এমনকি পঞ্চায়েত প্রধান অভিযোগ করেন, পুলিশ ইচ্ছাকৃত ভাবে তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করেছে৷

----
--