অন্তঃসত্ত্বা বধূর মৃত্যুতে শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: অন্তঃসত্তা গৃহবধূর মৃত্যুতে খুনের অভিযোগ তুলল তাঁর পরিবার৷ বৃহস্পতিবার রাতে মানিকতলা এলাকার হরিতকি বাগান লেনে শ্বশুরবাড়ি থেকে অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়ের (২৪) ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়৷ অর্পিতার বাপেরবাড়ির লোকেদের অভিযোগ, তাঁকে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ বড়তলা থানায় অর্পিতার স্বামী শঙ্খদীপ চট্টোপাধ্যায়-সহ শ্বশুরবাড়ির তিনজনের বিরুদ্ধে বধূনির্যাতন ও খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷

গত জানুয়ারি মাসে শঙ্খদীপের সঙ্গে বিয়ে হয় অর্পিতার৷ পাঁচমাসের অন্তঃসত্তা ছিলেন তিনি৷ শঙ্খদীপের দাবি, বৃহস্পতিবার রাতে অফিস থেকে ফিরে দেখেন, তাঁর ঘরের দরজা ভিতর থেকে বন্ধ৷ ঘর থেকে অর্পিতার কোনও সাড়াশব্দ না আসছে না৷ তখন বাড়ির অন্য সদস্যদের খবর দেন তিনি৷ সকলে মিলে দরজা খুলে ভিতরে ঢুকলে দেখে, গলায় ওড়না পেচিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে অর্পিতা৷ তখন বটি দিয়ে ওড়না কেটে অর্পিতাকে উদ্ধার করলেও ততক্ষণে যা হওয়ার হয়ে গিয়েছে৷ এরপর বড়তলা থানায় খবর দেন শঙ্খদীপ৷ অর্পিতার পরিবারের লোকেদেরও বিষয়টি জানান৷

অর্পিতার পরিবারের অভিযোগ, বিয়ের পর থেকে শ্বশুরবাড়িতে ঠিকমতো বনিবানা হচ্ছিল না৷ সেকথা বাপেরবাড়ির লোকেদের জানিয়েছিল সে৷ মানসিক নির্যাতনও করা হত বলে অভিযোগ৷ সেই নিয়ে মাঝেমধ্যে গোলমালও হয়েছে বলে দাবি অর্পিতার পরিবারের৷ সেই কারণেই তাঁকে খুন করে ঝুলিয়ে দিয়ে থাকতে পারে শঙ্খদীপেরা৷ তাই পুলিশ যাতে খুনের মামলা রুজু করে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে সেই আবেদন করা হয়েছে৷ অর্পিতাকে খুন করা হয়েছে নাকি তিনি আত্মহত্যা করেছেন সে বিষয়ে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত পুলিশ মুখ খুলতে চায়নি৷

Advertisement
---