জাকার্তা: এশিয়াডে আরও এক সোনা ভারতের ঝুলিতে৷ ছেলেদের ৪৯ কেজি লাইট-ফ্লাইওয়েট বিভাগে সোনা জিতলেন অমিত পাঙ্ঘাল৷ বিশ্বের এক নম্বর বক্সার উজবেকিস্তানের হাসানবয় দুসমাতভকে হারিয়ে সোনা জিতলেন ভারতীয় বক্সার৷ রিও অলিম্পিকে সোনা জিতেছিলেন হাসানবয়৷ বিচারকদের স্প্লিট ডিসিশনে ৩-২ ব্যবধানে উজবেক বক্সারকে হারালেন অমিত৷ তাঁর সোনা জয়ে ভারতের পদকের ঝুলিতে সোনার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৪৷

চলতি বছরে কমনওয়েলথে রুপো জিতেছিলেন ২২ বছরের পাঙ্ঘাল৷ এবার এশিয়াডে পদকের রং পাল্টে সোনা জিতলেন তিনি৷

পেশায় সামরিক বাহিনীর একজন তরুণ সদস্য অমিত। এশিয়াডে প্রথম আবির্ভাবেই সোনা জিতে নিলেন তিনি। রিও অলিম্পিকে সোনাজয়ী হাসান বরাবরই তাঁর গতি এবং জ্যাবের জন্য বক্সিংমহলে প্রশংসিত। গতবছর বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে এই উজবেক বক্সারের কাছেই হার স্বীকার করতে হয়েছিল অমিতকে। তাই এশিয়াডে বদলা নিয়ে সোনা জিততে মরিয়া ছিলেন রোহতকের এই বক্সার।

বদলার ম্যাচ জিতে সোনাজয়ী অমিত জানিয়েছেন, ‘আগে আমি ওঁর কাছে হেরেছি, তাই এক্ষেত্রে বদলা নিতে মুখিয়ে ছিলাম। সবরকম প্রস্তুতি নিয়েই ফাইনালে নেমেছিলাম, সেমিফাইনালের প্রথম রাউন্ডটা খুব একটা ভাল হয়নি। কিন্তু ফাইনালে একই ভুলের পুনরাবৃত্তি করতে চাইনি।’

কমনওয়েলথে রুপো জয়ের পর এশিয়াডের মত ইভেন্টে সোনা জয়। ক্রমেই বক্সার হিসেবে বিশ্বমঞ্চে পরিচিতি আদায় করে নিচ্ছেন তরুণ অমিত। এপ্রসঙ্গে ভারতীয় বক্সিং দলের কচ জানিয়েছেন, ‘শেষদিকে ক্লান্ত হয়ে পড়েছিল অমিত। পাঞ্চেও ততটা জোর পাচ্ছিল না। কিন্তু গতিতেই আজ বাজিমাত করেছে সে। সেমিফাইনালে প্রথম রাউন্ডের মত ভুল ফাইনালে করেনি। তাই বিশ্বাসের মর্যাদা রাখতে সক্ষম হয়েছে সে।’

----
--