অমিত শাহই সভা করবেন মালদহে, তবে দু’দিন পর

দেবময় ঘোষ, কলকাতা: রবিবার নয়, অমিত শাহ রাজ্যে আসছেন তার দু’দিন পর বুধবার৷ সেদিনই মালদহে সভা করবেন বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি৷ তাঁর নির্ধারিত বাকি চার সভার সূচীও দুদি করে পিছিয়ে গিয়েছে৷ রাজ্য বিজেপি সূত্রে খবর, ২৩ জানুয়ারি বীরভূমের সিউড়ি ও ঝাড়গ্রামে সভা করবেন অমিক শাহ৷ পরদিন তাঁর সভা রয়েছে কৃষ্ণনগর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার জয়নগরে৷

আরও পড়ুন: চুম্বন বিতর্কে জড়ানো দলের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মমতার ব্রিগেড চমক

রাজ্যে সভা করতে যে অমিত শাহ-ই আসছেন তা আগেই জানিয়েছিল Kolkata 24X7৷ সোয়াই ফ্লুতে আক্রান্ত বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি৷ সূত্রের খবর, শুক্রবার হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেও বিশ্রামের জন্য শনিবার পর্যন্ত নিজের সব কর্মসূচী বাতিল করেছেন তিনি৷ দিন কয়েকের বিরতীর পর বিরোধীদের ব্রিগেড সভার জাবাব দিতে মালদহকেই বেছে নিয়েছেন বিজেপির চাণক্য৷

রাজ্য বিজেপি সূত্রে আরও খবর, সর্বভারতীয় সভাপতির সভার ব্যাপারে প্রদেশ নেতৃত্বকে একপ্রকার নিশ্চয়তা দিয়ে রেখেছিল অমিত শাহের দফতর৷ অনেকেই বলছেন, রাজ্যে রথযাত্রার বিষয়টি অমিত অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে দেখছেন৷ ঘনিষ্টমহলে তিনি বলেছেন, গণতন্ত্র বাঁচাও যাত্রাকে অগণতান্ত্রিক ভাবে আটকানো হয়েছে৷ বাংলায় বিজেপির রথ চলবেই৷ এটাই চ্যালেঞ্জ৷ রথযাত্রার আগে গণতন্ত্র বাঁচাও সভাগুলিকে প্রচারের কাজে ব্যবহার করতে চাইছেন অমিত৷ তার সঙ্গেই খণ্ডন করবেন ব্রিগেডে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সব সমালোচনাকে৷

অমিত শাহের বিকল্প হিসাবে নাম উঠে এসেছিল উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর৷ কিন্তু কুম্ভ মেলা চলায় ব্যস্ত তিনি৷ ফলে বাংলায় আসতে পারবেন না যোগী৷ শুক্রবার সকালেই জানিয়ে দেওয়া হয় মুরলীধর সেন লেনের নেতাদের৷ তারপরই রাজ্যে কর্মসূচীতে যোগ দিতে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি আছেন বলে জানিয়ে দেওয়া হয়৷ পাঁচটি সভাই করবেন তিনি৷

আরও পড়ুন: ঠাণ্ডা ঘরে বসে রামমন্দির নিয়ে রাজনীতি চলছে: প্রকাশ রাজ

আদালতের রায়ে রথযাত্রা বন্ধ৷ তৃণমূলের ডাকে কলকাতায় বিরোধী শিবিরের তাবড় নেতারা৷ সভায় বিজেপি সভাপতিকে এনেই দলের নেতা, কর্মীদের মনোবল চাঙ্গা করতে মরিয়া গেরুয়া শিবির৷ এই পরিস্থিতিতে অমিত শাহের সভা ঘিরে তৈরি হয় অনিশ্চয়তা৷ সিন্দুরে মেঘ দেখছিলেন রাজ্য বিজেপি নেতারা৷ তবে বুধবার দলের সভাপতি বাংলায় আসার খবরে সেই মেঘ আপাতত কাটল বলেই মত মুরলীধর সেন লেনের নেতাদের৷