দ্বাদশ শতকের প্রাচীন শিব মন্দির জলের তলায়

ভুবনেশ্বর: ওড়িশার কালাহান্দির প্রাচীন জলেশ্বর শিব মন্দির৷ দ্বাদশ শতকে তৈরি এই প্রাচীন মন্দির কলিঙ্গ স্থাপত্যের অন্যতম নিদর্শন৷ বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে মন্দিরটি তীব্র গতিতে জলের স্রোতের ঠিক মাঝখানে দাঁড়িয়ে কোনওক্রমে রক্ষা করছে নিজেকে৷

ভুবনেশ্বরের কাছেই অবস্থিত এই মন্দিরটির একাংশ পুরোপুরি জলের তলায়৷ মন্দিরের ভিতর ও চারপাশ দিয়ে বয়ে চলেছে খরস্রোতা জলের ধারা৷ টানা বৃষ্টিতে ওড়িশায় তৈরি হয়েছে বন্যা পরিস্থিতি৷ সেই বন্যাতেই কালাহান্ডির ভবানীপত্না এলাকায় জলেশ্বর মন্দিরে প্লাবনের তোড়৷ ভয়াবহ জলের স্রোতে মন্দিরের বিভিন্ন অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

প্রাচীন ওই মন্দিরে রয়েছে সুপ্রাচীন শিবলিঙ্গ৷ যার ক্ষতি হয়েছে৷ এছাড়াও মন্দিরের দেওয়াল ও চারপাশের এলাকারও ক্ষতি হয়েছে৷ কোরাপুট, কান্ধামাল, রানিগড়, কালাহান্ডি, মালকানগিরির মতো বেশ কিছু জেলায় বৃষ্টির জেরে পরিস্থিতি ক্রমেই সংকটজনক হয়ে উঠেছে।

- Advertisement -

বৃহস্পতিবার পরিস্থিতির কোনও উন্নতি হয়নি। গত সপ্তাহে ভারী বর্ষণের জন্য মহানদীর জল বিপদসীমা পেরিয়ে যায়। ফলে মহানদীর ব-দ্বীপ অঞ্চলের বিস্তীর্ণ অংশ প্লাবিত হয়। মহানদীর জলোচ্ছ্বাসে কটক, জগৎসিংহপুর, কেন্দ্রাপড়া, খুর্দা সমেত বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত। মহানদী ছাড়াও ফুঁসে উঠেছে সুবর্ণরেখা, ব্রাহ্মণী, বৈতরণীর মতো নদীগুলিও। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ৩ লাখেরও বেশি মানুষ।

রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা প্রাথমিক তথ্যের ভিত্তিতে ওড়িশা সরকার জানিয়েছে, বন্যায় ৮ হাজার ২৮৬টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর মধ্যে কিছু বাড়ি আংশিক ভাঙলেও, সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বহু বাড়িঘর।
এ অবস্থায় দু-সপ্তাহের মধ্যে বন্যায় ক্ষয়ক্ষতির পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট চেয়ে প্রত্যেক জেলাপ্রশাসনের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে রাজ্য সরকার৷

Advertisement
---