কলকাতা: অভিনয়ের পাশাপাশি পরিচালনাতেও তিনি যে দক্ষ তা আগেও প্রমাণ করেছেন তিনি। কথা পরিচালক অনিন্দ্য বন্দ্যোপাধ্যায় কে নিয়ে। তাঁর মাথায় থাকে নানান রকম প্রশ্ন, নানান রকম ভাবনা,নানা রকম যুক্তি আর সেই ভাবনা আর যুক্তির সংমিশ্রণে তিনি তৈরি করেন ছবি।

‘স্মাগ’ ছবির সাফল্য ঠিক কতটা এসেছে তা জানা নেই। তবে থেমে থাকা একেবারেই সঠিক সিধান্ত নয়। তাই তাঁর পরবর্তী ছবি ‘ওয়াচমেকার’ নিয়ে জোরকদমে কাজে নেমে পরেছেন তিনি। লজিক নিজে তো সকলেই কথা বলে কিন্তু অ্যান্টিলজিক নিয়ে কতজন জোড় দেন? তবে এই আন্টিলজিকের উপর জোড় দিয়েই ছবি বানাচ্ছেন অনিন্দ্য বন্দ্যোপাধ্যায়।

Advertisement

আরও পড়ুন: টলিপাড়ায় ‘ভৌতিক’ চমক

ইতিমধ্যেই ইতালির ওনিরজ ফিল্ম ফেস্টিভেল-এ বেস্ট এক্সপেরিমেন্টাল ছবির পুরস্কার পেয়েছে ‘ওয়াচমেকার’। ২৫ জুলাই ঢাকা ইউনিভার্সিটি তে স্ক্রিনিং হতে চলেছে ছবিটি। ইতিমধ্যেই গোরকি সদন এ স্ক্রিনিং হয়ে গিয়েছে ছবিটির। এছাড়াও ঢাকা ইউনিভার্সিটি তে, শ্রীলঙ্কা ফিল্ম অ্যাকাডেমি ছাড়াও রামকৃষ্ণ মিশন এও ছবিটির স্ক্রিনিং হওয়ার কথা। এছাড়াও ওয়াচমেকার দেখানো হয়েছে দিল্লির হ্যাবিটাট চলচ্চিত্র উৎসবেও । আগামী ২০ জুলাই কলকাতার সত্যজিৎ রায় ফিল্ম ইন্সটিটিউটেও দেখানো হবে এই ছবি ।

আরও পড়ুন: খেলতে খেলতে দুই বোনের মর্মান্তিক পরিণতি

সিনেমা শুধুমাত্র বিনোদন নয়, সমাজের মানুষের মনে যদি প্রশ্নই না জাগাতে পারে তাহলে শুধুমাত্র বিনোদন দিয়ে কি হবে। সমাজের কাছে পাল্টা যুক্তি ছুড়ে দেওয়াই সিনেমার কাজ। অনিন্দ্য পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ওয়াচমেকারে রয়েছে মূলত তিনটে চরিত্র৷ যারা সময়ের কথা বলছে, একজনের কাছে সময়টা স্থির। দ্বিতীয়জনের কাছে সময়ের কোনও অস্তিত্বই নেই ।

আরও পড়ুন: আইনি সমস্যায় দেশী গার্ল

আর তৃতীয়জনের কাছে সময়টা ক্রমশ পিছনের দিকে ছুটছে ৷ ঠিক যেমন ঘড়ির কাঁটা পিছনের দিকে ছুটলে হবে সেরকম! এই তিনজন যখন মুখোমুখি এসে দাঁড়ায় তখন ওঠে তর্ক ৷ যুক্তির পর যুক্তি আসে ৷ তৈরি হয় অন্য একটি ‘সময়’ । যা আবার অস্থির । অনিন্দ্যের এই ছবি তাই সাদা-কালো রঙে ভরা । ছবিতে অভিনয় করেছেন অনিন্দ্য পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়, ঋতাভরী চক্রবর্তী, জয়ী দেবরায় এবং ঋতব্রত ভট্টাচার্য । অনিন্দ্যের দেখানো যুক্তি কতটা সাধারণ মানুষ মেনে নেয় এখন সেটাই দেখার।

আরও পড়ুন: গভীর রাতের ভূমিকম্পে ছড়াল আতঙ্ক

----
--