স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া ও জলপাইগুড়ি: স্বামী বিবেকানন্দর শিকাগো বক্তৃতার ১২৫ বছর পূর্তি উৎসব পালনে অংশ নিল প্রায় সব জেলা৷

বাঁকুড়াতেও নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এই উৎসব পালিত হল। মঙ্গলবার এই উপলক্ষে জয়রামবাটি রামকৃষ্ণ মিশন সারদা বিদ্যাপীঠের উদ্যোগে ছাত্র ও যুব সম্মেলন অনুষ্ঠিত হল। বর্ণাঢ্য প্রভাতফেরীর মাধ্যমে এদিনের অনুষ্ঠানের সূচনা হয়।

আরও পড়ুন: ভারতীয় কোচের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন ভিনেশের

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জয়রামবাটি শ্রী শ্রী মাতৃ মন্দিরের মহারাজ শ্রীমৎ স্বামী যুগেশ্বরানন্দ, তমলুক, পূর্ব মেদিনীপুরের রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের মহারাজ শ্রীমৎ স্বামী মহাতপা নন্দ, পূর্ব মেদিনীপুরের চকদ্বীপা হাইস্কুলের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক আশিসকুমার পাত্র প্রমুখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিল কোতুলপুর ব্লক এলাকার বিদ্যালয়গুলির ছাত্র ছাত্রী ও শিক্ষক-শিক্ষিকারা৷

এদিন জয়রামবাটি শ্রী শ্রী মাতৃ মন্দিরের মহারাজ শ্রীমৎ যুগেশ্বরানন্দ স্বামী বিবেকানন্দের চিকাগো বক্তৃতার অংশ বিশেষ উপস্থিত ছাত্রছাত্রীদের সামনে উপস্থাপিত করেন। তিনি বলেন, ‘‘স্বামী বিবেকানন্দ শুধু একজন সন্ন্যাসী ছিলেন না। তিনি যুগপুরুষও ছিলেন। তাঁর দেখানো পথেই ভারতবর্ষের উন্নয়ন সম্ভব। প্রত্যেককে স্বামী বিবেকানন্দের আদর্শকে পাথেয় করে চলার কথাও বলেন তিনি।’’

আরও পড়ুন: সিংগিমারি নদী গর্ভে কোচবিহারের পঞ্চধ্বজি প্রাথমিক বিদ্যালয়

বাঁকুড়ার পাশাপাশি জলপাইগুড়িতেও পালিত হয় স্বামী বিবেকানন্দের শিকাগো বক্তৃতার ১২৫ তম বর্ষ পূর্তি উৎসব৷ এদিন প্রসন্নদেব মহিলা মহাবিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। প্রদীপ জ্বালিয়ে ও স্বামী বিবেকানন্দের ছবিতে মাল্যদান করে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়৷ মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া এই অনুষ্ঠান চলবে শুক্রবার পর্যন্ত।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুবীর এস ভট্টাচার্য, কলেজের অধ্যক্ষ শান্তি ছেত্রী, পদ্মশ্রী করিমূল হক, সাংসদ বিজয়চন্দ বর্মণ, কলেজের পরিচালন সমিতির সদস্য তথা আনন্দ চন্দ কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক, শিক্ষাবিদ উমেশ শর্মা।

আরও পড়ুন: আধার সফটওয়্যার হ্যাকড, ফাঁস হতে পারে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য: রিপোর্ট

উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুবীর এস ভট্টাচার্য স্বামী বিবেকানন্দের জীবন কাহিনি নিয়ে আলোচনা করেন৷ তিনি পড়ুয়াদের জানান, সবার প্রথমে সকলের যেটা করতে হবে ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সম্পর্কের উপর জোর দেওয়া দরকার। সকল ছাত্রছাত্রীদের সময় মতো ক্লাসে আসতে হবে।

চাকরি জীবনের বিভিন্ন অভিজ্ঞতার কথা তিনি আলোচনা করেন৷ ছাত্রদের সুবিধা অসুবিধা যেমন শিক্ষকেরা বুঝতে হবে, তেমনই ছাত্রছাত্রীদের শিক্ষকদের সম্মান করতে হবে। ছাত্রছাত্রীদের এমন কোনও কাজ করা উচিত না যাতে শিক্ষকদের মনে আঘাত লাগে৷

আরও পড়ুন: কেরলের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল নন্দীগ্রামের স্কুল

কলেজের অধ্যক্ষ শান্তি ছেত্রী জানান, এই অনুষ্ঠান মঙ্গলবার থেকে চলবে শুক্রবার পর্যন্ত। বিভিন্ন কলেজকে নিয়ে একাধিক প্রতিযোগিতা মূলক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে।

আরও পড়ুন: #NRC:মায়ের নাগরিকত্ব প্রমাণে ব্যর্থ ছেলে আত্মঘাতী

----
--