সিঙ্গাপুরে নীরব মোদীর নাগরিকত্বের আর্জি খারিজ

নয়াদিল্লি : হাওয়া কি ঘুরছে? অবশ্য তা এখনই বলা কঠিন৷ তবু ধাক্কা খেলেন নীরব মোদী৷ সিঙ্গাপুরের নাগরিকত্ব হওয়ার তাঁর আবেদন খারিজ করে দিয়েছে সেদেশের সরকার৷ এই পলাতক হিরে ব্যবসায়ী আপাতত রেড কর্ণার নোটিশ এড়াতে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বিভিন্ন দেশে৷ গত জুলাই মাসেই ইন্টারপোল তাঁর বিরুদ্ধে রেড কর্ণার নোটিশ জারি করে৷

এরপরেই আন্তর্জাতিক গ্রেফতারি পরোয়ানা থেকে রেহাই পেতে সিঙ্গাপুরের নাগরিকত্বের আরজি জানিয়েছিলেন নীরব মোদী৷ রেড কর্ণার নোটিশ অনুযায়ী ইন্টারপোলের ১৯২ জন সদস্য দেশের মধ্যে যেকোনও জায়‌গা থেকে তাঁকে গ্রেফতার করা যেতে পারে। ইতিমধ্যেই মুম্বইয়ের আদালত নীরব মোদির বোন এবং ভাইকে সমন পাঠিয়েছে। ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে তাঁদের আদালতে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে।

গত এপ্রিলে সিবিআইয়ের আবেদনের ভিত্তিতে মুম্বই সেশন কোর্ট জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা ইস্যু করেছে মোদী এবং তাঁর মামা মেহুল চোকসির বিরুদ্ধে৷ ইডি-র পক্ষ থেকে মুম্বই সেশন কোর্টে ওদের দুজনের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা ইস্যু করার জন্য আবেদন করা হয়েছে ৷

- Advertisement -

পড়ুন: জলবন্দি মানুষকে উদ্ধার করতে ৪০ ফুট ব্রিজ বানাল সেনা

পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে ১৩,০০০ কোটি টাকা জালিয়াতির অভিযোগ রয়েছে তাঁদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই পলাতক জনপ্রিয় গয়না ব্যবসায়ী নীরব মোদি এবং তাঁর মামা মেহুল চোকসি। ইডি এবং সিবিআই তদন্ত শুরু করেছে।

সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই) অনুরোধের ভিত্তিতে ইন্টারপোল এই তিনজনের বিরুদ্ধে রেড কর্ণার নেটিশ জারি করেছে বলে জানা গিয়েছে৷ রেড কর্ণার নোটিশ জারি করার অর্থ মোদীকে যেকোনও দেশেই পুলিশ গ্রেফতার করতে পারবে৷ নানা সূত্র থেকে পাওয়া রিপোর্ট এরআগে জানায়, মোদী যুক্তরাজ্যেই রয়েছেন৷ যদিও সিবিআই তিনি কোথায় কীভাবে রয়েছেন এ ব্যাপারে কোনও খবর দিতে অস্বীকার করেছে৷

মোদীকে গ্রেফতার করতে পারলে এবং তাকে ভারতে ফিরিয়ে আনা হলে তখন এই ব্যাংক প্রতারণার তদন্তে সুবিধা হবে৷ মোদীর আইনজীবিরা অবশ্য এই বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি৷

Advertisement ---
---
-----