জানেন কৌশিকী অমাবস্যায় মা তারা কী বললেন অনুব্রত মণ্ডলকে

স্টাফ রিপোর্টার, বীরভূম: তিনি যে কালীভক্ত কেষ্ট তা গোটা বীরভূম জানে৷ শুধু বীরভূম কেন গোটা রাজ্যের কাছে অনুব্রত মণ্ডলের কালীভক্তি অজানা নয়৷ হতে পারেন জেলার দাপুটে নেতা তিনি৷ হতে পারে তিনি কথায় জোরেই বাঘ-গরুকে একঘাটে জল খাওয়াতে পারেন৷ কিন্তু এই সবকিছুর আড়ালেও এক অন্য অনুব্রত আছেন৷ এবং কমবেশি সকলেই সে খবর রাখেন৷

বীরভূমের এই তৃণমূল নেতার বাড়িতে রয়েছে প্রতিষ্ঠিত মা কালী৷ প্রতিদিন মায়ের সেবা না করে এই ভক্ত জল পর্যন্ত স্পর্শ করেন না৷ শরীরের যত সমস্যায় থাকুক না কেন সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠে স্নান সেরে শুদ্ধ বস্ত্র পরে মায়ের পুজো করেন নিজে হাতে৷

আরও পড়ুন: মহিলা সাব-ইন্সপেক্টরকে চোখ রাঙাচ্ছেন বিজেপি বিধায়ক, ভিডিও ভাইরাল

মায়ের প্রসাদ মুখে তুলে তারপর অন্য কিছু মুখে তোলেন কালীভক্ত অনুব্রত৷ মায়ের নামের সঙ্গে তাঁর নাম জুড়ে বোলপুরে প্রতি বছর কেষ্টকালীর পুজো হয়৷ লোকমুখে ফেরে সে পুজোর কথা৷ নিজে দাঁড়িয়ে থেকে মায়ের পুজো দেখেন অনুব্রত৷ এবছর কৌশিকী অমাবস্যায় তারাপীঠে গিয়েছিলেন অনুব্রত৷ ভক্তিভরে মাকে অর্পণ করেছেন রাঙাজবা৷

রাঙা চোলিতে মাকে ভক্তিভরে সাজিয়েছেন৷ সঙ্গে লাল জড়ি পাড়ের শাড়ি, পদ্মের মালা৷ হাত জোড় করে মায়ের কাছে কী যেন বলেই চলেছেন বিড়বিড়িয়ে৷ পুজো দিয়ে বেরিয়ে অনুব্রত বলেন, ‘‘যা চাই সবসময়৷ তাই চাইলাম৷ মা যেন সকলের মঙ্গল করেন৷ সকলকে শুভ বুদ্ধি দেন৷’’আর? অনুব্রত বলেন, ‘‘বললাম মা তুমি তো সব পারো৷ ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে ৪২-এ ৪২ করে দাও মা৷ মা আমাকে বলেছেন ৪২-এ ৪২ করে দেবেন৷’’

আরও পড়ুন: পুজো শেষে তারা মাকে নিবেদন করা হবে বিশেষ ভোগ

----
-----