অমিতের বীরভূম সফরকে কটাক্ষ করলেন অনুব্রত

স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি: বৃহস্পতিবার তারাপীঠ মন্দিরে পুজো দিয়েছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। কেন্দ্রের শাসকদলের নেতার এই সফর নিয়ে চর্চা হচ্ছে দেশ জুড়ে। এই অবস্থায় রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের ওই জেলার সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল মুখ খুললেন অমিত শাহের সফর শেষের পরে।

আরও পড়ুন- তারা মায়ের আর্শীবাদ নিতে বীরভূমে অমিত

পদ্ম শিবিরের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের বীরভূম সফর নিয়ে তাঁকে কটাক্ষ করলেন ঘাস ফুলের কেষ্ট। সাফ জানিয়ে দিলেন বীরভূমে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যা উন্নয়ন করেছে তা নিয়ে মোদী বা অমিত শাহের কিছু বলার থাকবে না। তাঁর কথায়, “উনি(অমিত শাহ) তো অস্বীকার করতে পারেন না যে মা-মাটি-মানুষের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে উন্নয়ন করেছেন, তাতে ওনা(অমিত শাহ)র কিছু বলার নেই ওনার কোন বক্তব্যও নেই। পশ্চিমবঙ্গে যা উন্নয়ন হয়েছে তাতে আগামী দিনে অমিত শাহ এবং মোদীর কিছু বলার থাকবে না।”

- Advertisement -

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে তৃণমূল কংগ্রেসের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেছিলেন, ‘রাস্তায় উন্নয়ন দাঁড়িয়ে থাকবে। বিরোধীরা কিছুই করতে পারবে না।’ এদিনও সেই উন্নয়নের তত্ত্ব তুলে ধরেন তিনি।

আরও পড়ুন- মমতা তাড়াতে মা তারার দ্বারস্থ অমিত শাহ

তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত রাজ্য সরকারের উন্নয়ন দেখেই তারাপীঠে অমিত শাহ তৃণমূলের বিরুদ্ধে মুখ খোলেননি বলে দাবি করেছেন অনুব্রত মণ্ডল। তাঁর মতে, “আমাদের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী যা উন্নয়ন করেছেন তা রাস্তায় দাঁড়িয়ে আছে। তাই আজ অমিত শাহ তারাপীঠে এসে দেখলেন তারাপীঠের যা উন্নয়ন হয়েছে, রাস্তাঘাটের যে উন্নয়ন হয়েছে তাতে সত্যিই তো উন্নয়ন রাস্তায় দাঁড়িয়ে আছে। তাই তিনি কোনও মুখ খুললেন না।”

আরও পড়ুন- বামেদের সাহায্যে বাংলায় হিংসা ছড়াতে চাইছে বিজেপি: অমিত

বৃহস্পতিবার দুপুর ১১.৪০ মিনিট নাগাদ তিনি বীরভূমের রামপুরহাটে তারাপীঠ মন্দিরে যান৷ মন্দিরে ছিলেন ১০ মিনিট৷ ষোড়শ উপাচারে মা তারাকে পুজো দেন তিনি৷ মমতাকে উৎখাত করতেই যে পূর্ণিমা তিথিতে তাঁর তারাপীঠ আগমন, দুপুরে পুরুলিয়ার শিমুলিয়ার জনসভায় নিজেই সেকথা খোলসা করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি৷ মন্দির থেকে বেরানোর সময় মন্দির কমিটির তরফে তাঁকে মা তারার একটি ছবি ও তারাপীঠের ইতিহাস সম্বলিত একটি পুস্তিকা দেওয়া হয়৷

আরও পড়ুন- দুর্নীতিগ্রস্ত কেন্দ্র, অমিতকে পালটা হুঙ্কার পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের

এদিন পুরুলিয়ার জনসভায় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ বলেন, ‘‘তারাপীঠের তারা মা খুব জাগ্রত৷ আশাকরি তিনি আমার মতো নিষ্ঠাবান ভক্তের ডাকে সাড়া দিয়ে বাংলা থেকে মমতার সরকারকে উৎখাত করবেই করবে৷ কারণ, তা না হলে বাংলার মানুষের দুদর্শার শেষ থাকবে না৷’’ মন্দির কমিটি সূত্রের খবর, এদিন তারাপীঠের মন্দিরে দুটো পুজো দেন অমিত৷ একটি নিজের নামে, অন্যটি দেশবাসীর ভালোর জন্য ভারতমাতার নামে৷

আরও পড়ুন- বৈঠক না করেই পুরুলিয়া চলে গেলেন অমিত শাহ

এদিন তড়িঘড়ি দলীয় কর্মীদের সাথে বৈঠক না করেই অমিত শাহ তারাপীঠ থেকে পুরুলিয়ার উদ্দেশ্যে চলে যাওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে রাজনৈতিক মহল। লোকসভা নির্বাচনের ঠিক আগে বীরভূম সফরে এসে অমিত শাহ দলীয় কর্মীদের কি বার্তা দিয়ে গেলেন সেই দিকেই এখন তাকিয়ে সব মহলের মানুষ।

Advertisement ---
-----