আদালতের নির্দেশ মানছে না বিশ্বভারতী, অভিযোগ অনুপম হাজরার

স্টাফ রিপোর্টার, বোলপুর: হাইকোর্টের নির্দেশ সত্ত্বেও বেশকিছু জটিলতার কারণে বিশ্বভারতীতে পুনর্বহাল হতে পারছেন না বোলপুরের সাংসদ অনুপম হাজরা৷ গত বুধবার হাইকোর্টের পক্ষ থেকে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেওয়া হয় অনুপম হাজরাকে পুনর্বহালের জন্য৷

শুক্রবার সেই নির্দেশমত তিনি ওলকোর্টের কপি নিয়ে বিশ্বভারতীতে পৌঁছন৷ কিন্তু বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ তাঁকে সেখানে কাজে যোগদানে বাধা দেয় বলে দাবি অনুপমের৷ এ নিয়ে নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে ক্ষোভ উগড়ে দেন বোলপুরের সাংসদ অনুপম হাজরা৷ ফেসবুকে লেখেন, ‘‘যেহেতু অনুপম হাজরা এর আগে বিশ্বভারতীর দুর্নীতি নিয়ে সরব হয়েছিলেন উদ্দেশ্যপ্রণোদীতভাবে সরানো হয়েছিল৷ বর্তমান ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য শ্রীমতী সবুজকলি সেনও প্রতিশোধস্পৃহা জিইয়ে রেখেছেন৷ মহামান্য আদালতের নির্দেশও মানছে না৷’’

- Advertisement -

এরপরই অনুপম লেখেন, ‘‘আমাকে ইচ্ছা করে কাজে যোগ দিতে দেওয়া হচ্ছে না৷’’ যদিও বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে প্রকাশ্যে মুখ খোলেনি৷ তবে সূত্রের খবর হাইকোর্টের নির্দেশসম্বলিত কপিটি এখনও বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের হাতে এসে পৌঁছয়নি৷ তাই সেক্ষেত্রে অনুপম হাজরার কাজে যোগদানের ক্ষেত্রে সমস্যা হচ্ছে৷

তবে গত বুধবার কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অরিন্দম সিনহা বলেন, ‘‘বিশ্বভারতী কাজে বাধা দিতে পারে না৷ কিন্তু অনুপম হাজরার লিয়েন বিশ্বভারতী বাড়াবে কি না তা তাদের সিদ্ধান্ত৷’’ অনুপম হাজরা অবশ্য সেদিনই বলেছিলেন, ‘‘আমি দুর্নীতির বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলাম বলেই আমাকে চাকরি থেকে সরানো হয়েছিল৷ হাইকোর্টের এই নির্দেশ প্রমাণ করল বিশ্বভারতী আমাকে বৈধভাবে চাকরি থেকে সরায়নি৷ আমিও যে আইনের বাইরে কিছু করিনি তা প্রমাণ হল৷’’

Advertisement ---
-----