সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় , কলকাতা : বিশ্ব উষ্ণায়নকেই সামনে রেখে গান বাঁধলেন অন্বেশা দত্তগুপ্ত। আশা অডিওর প্রযোজনায় নিজের এই নতুন বাংলা সিঙ্গেলসটি মঙ্গলবার প্রকাশিত হল। তবে এই গানের সঙ্গে আদ্যপান্ত ভাবে জড়িয়ে রয়েছেন পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তী ও তাঁর পরিবার। পুত্র অনঞ্জন চক্রবর্তীর কম্পোজিশনেই ‘মাসুম সপনে’ গাইলেন অন্বেশা।

‘মাসুম সপনে’-র মূল বিষয় বিশ্ব উষ্ণায়ন। গানের সুরকার অনঞ্জন বলেন, “বিশ্ব জুড়ে চলতে থাকা এই গভীর সমস্যাই গানের ভিডিওর মধ্যে উঠে এসেছে। তবে বিশ্ব উষ্ণায়নের অর্থ শুধুই সবুজের ধ্বংসের ফলে বরফ গলে জলস্তর বেড়ে যাওয়া নয়। ‘মাসুম সপনে’ বলছে মানুষের মধ্যে ক্রমে বেড়ে চলা ক্রোধের কথা, অবিশ্বাসের কথা, হানাহানির কথা, যুদ্ধের কথা। সব কিছুই ক্রমশ উত্তপ্ত করছে পৃথিবীকে।” এত গভীর উষ্ণতার অসুখ থেকে এক টুকরো শান্তির খোঁজ চলছে ‘মাসুম সপনে’-র মাধ্যমে। মিউজিক ভিডিওটির লঞ্চ অনুষ্ঠানে হাজির থাকলেন পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তী, কৌশিকী দেশিকান ও জয় সরকার।

তবে গানের বিষয় বিশ্বের অস্থির অবস্থা হলেও এর সুর করা হয়েছে লুলাবি ধারায়। এই ধারা অত্যন্ত ধির স্থির ভাবে চলে। দৃশ্যায়নেও রয়েছে সেই স্থিরতা। এই দারুন বিষয়ে গান গাইতে পেরে অত্যন্তই খুশি অন্বেসা নিজে। অন্বেসা বলেন , “ এই গানটিতে কাজ করতে পেরে আমি অত্যন্ত খুশি কারন অনঞ্জন দা’র গানের বিষয়। তাছাড়া পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তী পরিবারের সঙ্গে যে গানের যোগ রয়েছে সেই গানে আমি গাইতে পেরেছি এটা ভেবেই আমি গর্ববোধ করছি।”

আশা অডিওর সঙ্গে ‘মাসুম সপনে’র গানের প্রোডাকশনে কাজ করেছেন অনঞ্জনের নতুন স্টুডিও। ভিডিওটি পরিচালনা করেছেন অপেক্ষা লাহিড়ী। লিখেছেন অনির্বাণ ঘোষ, ইনিও পণ্ডিতের পরিবারেরই সদস্য। ইতিমধ্যেই মিউজিক ভিডিওটি দেখা যাচ্ছে আশা অডিওর ইউটিউব চ্যানেলে।

গানের অন্বেশার এই দৌড় শুরু ২০০৭ সালে। সা রে গা মা পা নামে একটি রিয়্যালিটি শোয়ের ফাইনালিস্ট ছিল। কিন্তু সেবার ফিরতে হয়েছিল খালি হাতেই। সেই খালি হাত বেশি দিন ওই অবস্থায় থাকেনি।একের পর এক কাজ করে গিয়েছে সে। হাত পাকিয়েছে বলিউডেও। তবে ‘গান দেখার’ যুগে দাঁড়িয়ে অন্বেশার এই গানের বিষয় সত্যিই অভিনব। সবার মনে শান্তি আনবে এটাই আশা টিম অজয় চক্রবর্তী ও আশা অডিওর।

----
--