মরণোত্তর শৌর্য চক্র পাচ্ছেন কাশ্মীরের জওয়ান ঔরঙ্গজেব

নয়াদিল্লি: স্বাধীনতা দিবসে কাশ্মীরের মাটিতে অপহৃত হওয়া সেনা জওয়ান ঔরঙ্গজেবকে শৌর্য চক্র দিচ্ছে কেন্দ্র। ঠিক দু’মাস আগে গত ১৫ জুন তাঁকে কাশ্মীরে তুলে নিয়ে গিয়ে খুন করে জঙ্গিরা। ইদের আগে বাড়ি ফিরছিলেন ঔরঙ্গজেব। সেইসময় তাঁকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। পরে জঙ্গলের মধ্যে তাঁকে খুন করে দেওয়া হয়।

মোট ২০ জনকে দেওয়া হচ্ছে শৌর্য চক্র। এর মধ্যে রয়েছে মেজর আদিত্য কুমারের নামও। কাশ্মীরের সোপিয়ানে পাথর ছোঁড়ার ঘটনায় বিতর্কের মুখে পড়েন আদিত্য কুমার। ওই ঘটনায় একজনের মৃত্যু হয়েছিল।

শ্রীনগর থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরে সালানি গ্রামের মেন্ধরের বাসিন্দা ছিলেন ঔরঙ্গজেব। ঔরঙ্গজেবের মৃত্যুর পর তাঁর আত্মীয় ও বন্ধুরা তাঁর বাড়িতে হাজির হন ও ঔরঙ্গজের অপূর্ণ অভিযান সম্পূর্ণ করার শপথ নেন। সেনা ও পুলিশে যোগদান করে ঔরঙ্গজেবের হত্যাকারীদের প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য সৌদি আরব ছেড়ে চলে এসেছেন অন্তত ৫০ জন যুবক।

- Advertisement -

ঔরঙ্গজেবকে হত্যার পর আরও এক সিআরপিএফ জওয়ান ও এক পুলিশ অফিসারকে একইভাবে হত্যা করেছে জঙ্গিরা। কাশ্মীরের অনেক পুলিশ ও জওয়ানই জানিয়েছেন যে তাঁরা জঙ্গিদের হুমকির মুখে রয়েছেন।

Advertisement ---
-----