কাঁকরতলা বিস্ফোরণে ধৃত সাত তৃণমূল সমর্থক

স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি: বীরভূমের কাঁকরতলায় তৃণমূল কার্যালয়ে বিস্ফোরণের ঘটনায় গ্রেফতার সাতজন৷ ধৃতরা প্রত্যেকেই তৃণমূল সমর্থক বলে সূত্রের খবর৷ মঙ্গলবার ধৃতদের দুবরাজপুর আদালতে পেশ করে পুলিশ৷ আদালত ধৃত শেখ আসমত, শেখ সাত্তোর ও শেখ সালাউদ্দিনকে ৬ দিনের পুলিশ হেপাজতের নির্দেশ দেয়৷ বাকি চার জনকে ১৪দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ হয়েছে৷ অন্যদিকে তদন্তে নেমে এদিনই ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহ করে বোন্ব স্কোয়াড৷দলীয় কার্যালয় থেকে উদ্ধার হয়েছে বোমা তৈরির সরঞ্জাম৷

সোমবার বীরভূমের কাঁকরতলায় তৃণমূল অঞ্চল কার্যালয়ে বিষ্ফোরণ হয়৷ বিষ্ফোরণের তীব্রতায় উড়ে যায় দলীয় দফতরে ছাদ৷ ঘরের জানালা৷ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে বড়রা গ্রামে৷ প্রাথমিক অনুমান, ওই তৃণমূল কার্যালয়ে বোমা মজুত ছিল৷ সেই বোমা ফেটেই এই বিষ্ফোণ৷

এদিন সিআইডি’র বোম স্কোয়াড কাঁকরতলায় তৃণমূল কার্যাল পরিদর্শন করে নমুনা সংগ্রহ করে৷ কাঁকরতলার তৃণমূল অঞ্চল প্রধান শেখ আজফার ওরফে কালোর পার্টি অফিস বলেই সেটি পরিচিত৷ ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ কালো৷ কেন হঠাৎ পলাতক কালো তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছে দলে তার বিরোধী শিবিরের লোকজন৷ ৷ সব দেখে সিআইডির প্রাথমিক অনুমান এই কার্যালয় বসেই বোমা তৈরীর কাজ চলত৷

সামনেই পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন। পঞ্চায়েতের দখল ঘিরেই খয়রাশোল ব্লকের দুই গোষ্ঠীর লড়াইয়ে জেরবার বীরভূম জেলা তৃণমূল৷ তারই জেরে দলীয় কার্যালয়ে বোমা মজুত থাকতে পারে বলে অনুমান৷ কোথা থেকে বোমাগুলি পার্টি অফিসে এল, কারা সেগুলি রাখতে বলেছিল ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে তা জানার চেষ্টা করবে গোয়েন্দারা৷

----
-----