প্রসেনজিৎ চৌধুরী, আসানসোল: শিল্পশহরের জীবন প্রায় থমথমে৷ সকাল গড়িয়ে বিকেল হয়ে রাত নামছে নিয়ম করে, অথচ আসানসোলের চাঁদমারি মহল্লাতে যেন দিনের শুরুতেই রাতের আঁধার৷ পিচের রাস্তার দু’দিকে দুই পাড়া৷ একদিকে শিবমন্দির, কিছুদূর এগিয়ে গেলে মসজিদ৷ হিন্দু-মুসলিম মেশানো এলাকায় যেন সীমা=ন্ত রচনা করেছে এই রাস্তা৷

থমথমে পরিস্থিতি৷ অবাঙালি হিন্দু মহল্লার অভিযোগ, ওরা এসে হামলা চালাল৷ কেন এমন করল৷ রামনবমীর মিছিলকে ঘিরে আগে কখনও হয়নি এমন৷আর মুসলিম পাড়ার দাবি, কই দেখুন তো কোনও হিন্দু দোকান ভাঙচুর হয়েছে কি?

Advertisement

বাস্তবিক৷ অথচ গোষ্ঠী সংঘর্ষ হয়েছে৷ কারণ স্থানীয় শুভম বিয়ে বাড়িতে হয়েছে ত্রাণ শিবির৷ সেখানে আশ্রয় নেওয়া প্রত্যেকেই জানিয়েছেন পরিস্থিতি ভয়াবহ৷ আর মুসলিম মহল্লার বাসিন্দারা বলছেন, হামলা করেছে দুষ্কৃতীরা৷ কারা আছে ঘটনার পিছনে ? ক্ষোভ উগরে দেয় দুপক্ষ৷ তাদের অভিযোগ, রাজনীতির বলি হলাম আমরা, এটা কেন হল ?

আসানসোলের রাজনীতিতে এখনে তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির সরাসরি লড়াই৷ অনেকেই জানাচ্ছেন, ধর্মীয় উৎসবকে কেন্দ্র করে কয়েকটি সংগঠন

রাজনীতির ফায়দা নিতে চাইছে৷ আর তারই বলি হচ্ছেন সাধারণ বাসিন্দারা৷ যে এলাকা নিয়ে সবথেকে সমস্যা, সেই রেলপাড় চাঁদমারি মহল্লার নিরাপত্তা নেই বললেই চলে৷ দুই ধর্মের মধ্যে আড়াআড়ি ভাগ হয়ে যাওয়া পাড়ার দু তরফেই পুলিশকে দায়ি করছেন৷ বিকেলে পর বিশাল পুলিশ বাহিনী ঢুকেছে এলাকায়৷ চলছে রুটমার্চ৷ তার মধ্যেই ফিরছে এলাকার জীবন ছন্দ ফেরানোর তাগিদ দেখা দিয়েছে৷

রামনবমী আসানসোলে দীর্ঘদিন ধরেই পালিত হয়৷ তেমনই হয় চাঁদমারি মহল্লাতেও৷ আবার প্রতিবেশী মুসলিম পাড়াতেও বের হয় মহরম শোভাযাত্রা৷ কোনওদিন ঝামেলা হয়নি৷ এমনই জানালেন কৃষ্ণপ্রসাদ সিং৷ রেলের মজুরের দাবি, এর পিছনে আছে ভোটের প্যাঁচ৷ আর মুসলিম পাড়ার মিনহাজুল ইসলাম জানিয়েছেন, ঠিকই তো, যেভাবে সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় উত্তেজনা ছড়াচ্ছেন তাতে গোষ্ঠী সংঘর্ষ আবারও বেড়ে যেতে পারে৷

মুসলিম মহল্লার অভিযোগ, তাঁদের লক্ষ্য করে ধর্মীয় উস্কানি দিয়ে বলা হয় পাকিস্তানে চলে যেতে৷ আমরা তো ভারতীয়৷ তাহলে কেন এরকম বলা হচ্ছে৷ হিন্দু মহল্লার দাবি, পয়সার খেলা চলছে৷ তাতে ঘর পুড়ছে সাধারণের৷

দুই পাড়ার মধ্যে রাস্তাটা যেন আক্ষরিক অর্থেই এক সীমান্ত৷ এপারের লোক কিছুদূর গিয়ে আটকে যাচ্ছেন৷ অন্যপারের বাসিন্দারা সেটাই দেখছেন৷ সন্ধে নামছে মন্দিরে শোনা যাচ্ছে পুজো আরতির ধ্বনি৷ মসজিদ থেকে ভেসে আসছে আজান৷ চেনা ছন্দ৷ তবুও অচেনা৷ খুবই অচেনা৷ ফেরার পথে দেখলাম রাস্তায় রাস্তায় পুলিশ পিকেট৷ রক্ষীদের মুখে উদ্বেগের ছায়া৷

শিল্পশহর আসানসোল নতুন শিল্প গড়ে তোলার স্বপ্ন ভুলে ধর্ম নিয়ে রাজনীতির খেলায় বিদ্ধ হচ্ছে৷ আগামী নির্বাচনে তার প্রভাব পড়বে৷

----
--