নাবালিকা ধর্ষণ মামলায় আজ আসারামের ভাগ্য নির্ধারণ করবে আদালত

যোধপুর: আসারাম বাপু ধর্ষণ মামলার রায় দেবে যোধপুরের বিশেষ আদালত। বুধবার সেই রায়ের আগে নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে চারপাশ। মোতায়েন করা হয়েছে বাড়তি বাহিনী।

২০১৩-তে নিজের আশ্রমে ১৬ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে আসারামের বিরুদ্ধে। বর্তমানে যোধপুর সেন্ট্রাল জেলে রয়েছে সেই স্বঘোষিত ধর্মগুরু আসারাম বাপু। সেই মামলারই রায় ঘোষণা হতে চলেছে পাঁচ বছর পর।

গুরুত্বপূর্ণ এই রায়দানকে কেন্দ্র করে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে কেন্দ্রের নির্দেশে রাজস্থান ছাড়াও গুজরাত ও হরিয়ানায় নিরাপত্তা নিশ্ছিদ্র করা হয়েছে। এই তিন রাজ্যে আসারামের প্রচুর অনুরাগী ও ভক্ত রয়েছেন।

যোধপুরের কেন্দ্রীয় কারাগার চত্বরে বুধবার কিছুক্ষণ পরেই বিশেষ আদালত বসছে। বিচারক কেন্দ্রীয় কারাগার চত্বরে পৌঁছেছেন ইতিমধ্যেই। খুব শীঘ্রই রায় ঘোষণা করা হবে। সতর্কতার কারণেই রাজস্থান হাইকোর্টের নির্দেশে কেন্দ্রীয় কারাগার চত্বর সাধারণের জন্য ‘নিষিদ্ধ এলাকা’‌ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। গত শনিবার থেকেই ১৪৪ ধারা জারি রয়েছে। ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত তা বলবৎ থাকবে।

২০১৩-র আগষ্টে আসারামকে গ্রেফতার করা হয়। তারপর যোধপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে আসা হয় তাঁকে। তখন থেকেই বিচারবিভাগীয় হেফাজতে রয়েছেন তিনি।

Advertisement
----
-----