পাণ্ডবদের রাজধানী ইন্দ্রপ্রস্থের খোঁজ শুরু করল প্রত্নতাত্ত্বিকরা

নয়াদিল্লি: দিল্লির’ পুরানা কিলা’র সঙ্গে মহাভারতের যোগ ছিল, এমন প্রমাণ আগেও মিলেছে। সেই নিয়ে বিস্তর গবেষণাও হয়েছে। তবে এখানেও পাণ্ডবদের রাজধানী ইন্দ্রপ্রস্থ ছিল কিনা, সেবিষয়ে নিশ্চিত হতে এবার পুরানা কিলায় ফের খোঁজ শুরু করছে প্রত্নতত্ত্ববিদরা। ইন্দ্রপ্রস্থের অস্তিত্ব খুঁজতে পুরনো এই কেল্লায় শের মণ্ডলের কাছে মাটি খুঁড়বে ‘আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া’।

গত ৪০ বছরে এই পুরানা কিলায় তিনবার গবেষণার কাজ চালিয়েছে ‘আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া’। সেইসময় বহু ঐতিহাসিক জিনিস উঠে আসে। মৌর্য যুগের টেরাকোটার খেলনা, সুংগা যুগের টেরাকোটার জিনিস, কুশন যুগের কপার কয়েন, গুপ্তযুগের কয়েন ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের প্লেট, চিনা পোর্সেলিন, কাঁচের ওয়াইনের বোতল এমনকি মুঘলদের সময়কার সোনার কানের দুলও পাওয়া গিয়েছিল।

‘আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া’র সুপারিন্টেন্ডিং আর্কিওলজিস্ট বসন্ত কুমার স্বর্ণকার জানিয়েছেন, ‘এখনও পর্যন্ত পুরানা কিলায় পাওয়া জিনিসপত্র সবই ৩০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দের মৌর্য যুগের জিনিস। কিন্তু তার আগে সেখানে প্রাণের অস্তিত্ব ছিল কিনা, সেটাই এখন গবেষণার বিষয়।’

- Advertisement -

শের মণ্ডলের কাছে দুটি গর্ত খোঁড়া হয়েছে। সপ্তাহ খানেক আগে এই প্রজেক্ট শুরু হয়, চলবে আগামী কয়েক মাস ধরে। কোনও প্রমাণ না পাওয়া পর্যন্ত চলবে কাজ। এখনও পর্যন্ত দেড় ফুট গভীরে যাওয়া সম্ভব হয়েছে বলে জানিয়েছেন ‘আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া’র আধিকারিকেরা। চার ফুট নিচে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

মাটির তলা থেকে যা পাওয়া যাবে, তা সাধারণের দর্শনের জন্য সাজানোর ব্যবস্থা করা হবে। যার মধ্যে বেশির ভাগই নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র।

Advertisement
---